মেইন ম্যেনু

আমারটা খোলামেলা হলে অন্যদের কি বলা হবে? : অহনা

ছোট পর্দায় নিয়মিত কাজ করেন অহনা। সে সঙ্গে বড়পর্দায়ও রয়েছে তার বিচরণ। ‘চাকরের প্রেম’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে তার যাত্রা শুরু হয়। ২০০৮ সালের কথা। রকিবুল আলম রকিব পরিচালিত এ ছবিতে নায়ক হিসেবে অহনা পান আমিন খানকে। ছবিটি ব্যবসায়িক সাফল্য পেলেও বড় পর্দায় আর মুখ দেখাতে চাননি অহনা। একের পর একক নাটক, ধারাবাহিক নাটক, টেলিছবি ও বিজ্ঞাপনচিত্র নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন।

এর প্রায় বছর চারেক পর তাকে চলচ্চিত্রে আবার ফিরিয়ে আনেন নির্মাতা এফ আই মানিক। ছবির নাম ‘দুই পৃথিবী’। এ ছবিতে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেন তিনি। এবার মুক্তি পাচ্ছে অহনার ক্যারিয়ারের তৃতীয় ছবি ‘চোখের দেখা’। পি এ কাজল পরিচালিত এ ছবিটি এরই মধ্যে সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে। ছবিতে অহনার বিপরীতে অভিনয় করেছেন সাইমন। অহনা ছবিটির মুক্তির খবর জেনে বেশ উচ্ছ্বসিত।

তিনি বলেন, এরই মধ্যে এ ছবির কিছু গান ইউটিউবে প্রকাশ করেছেন পরিচালক। সেসবের মধ্যে কনকচাঁপা ও আরিফের গাওয়া ‘ডুববো আমি’ শিরোনামের গানটি অনেকেই বেশ প্রশংসা করেছেন। ১৪ই অক্টোবর ছবিটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে। এখানে আমার চরিত্রের নাম রোজ। গল্পের খাতিরে ছবিটিতে একজন অন্ধ মেয়ে হিসেবেও একটা সময় অভিনয় করতে হয়েছে আমাকে। সাইমনও বেশ ভালো কাজ করেছেন। আশা করি, ছবিটি দর্শক পছন্দ করবেন।

এদিকে এ ছবিটি মুক্তির আগে একটি গানের দৃশ্য নিয়ে বেশ আলোচনাও হয়েছে। বিশেষ করে এ গানে অহনার পরনে থাকা পোশাক নিয়ে সমালোচনা হয়েছে নানা মহলে। তবে অহনা এ প্রসঙ্গে বলেন ভিন্ন কথা।

তিনি বলেন, পুরো ছবিতে আমার ও সাইমনের কোনো রোমান্টিক দৃশ্য ছিল না। তাই পরিচালক দর্শকের কথা মাথায় রেখে একটি গানে রোমান্টিকভাবে আমাদের উপস্থাপনের চেষ্টা করেছেন। কিন্তু এই গানটিকে ঘিরে অনেকে অনেক নোংরা কথা বলেছেন। আমার কথা হচ্ছে ঢালিউডে অন্য অনেক নায়িকা এর চেয়েও খোলামেলা পোশাক পরেছেন। আমারটা খোলামেলা হলে অন্যদের কি বলা হবে? শুধু আমার গানটি নিয়েই কেনো এত আপত্তি! দর্শকদের ছবিটি হলে গিয়ে দেখার অনুরোধ থাকছে।

উল্লেখ্য, সাইমন ও অহনার পাশাপাশি এ ছবিতে অভিনেতা শতাব্দী ওয়াদুদও অভিনয় করেছেন। কুশলী মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত ছবিটির কাহিনী, সংলাপ, চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করছেন পি এ কাজল।

অন্যদিকে, ‘চোখের দেখা’ ছবিটির মুক্তির অপেক্ষায় থাকার পাশাপাশি এবারের ঈদে বেশকিছু নাটকে অভিনয় করেছেন অহনা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এবারের ঈদে কয়েকটি নাটকে কাজ করেছি। তবে এরমধ্যে জিটিভিতে মীর সাব্বির ভাইয়ের রচনা ও পরিচালনায় ‘বাপ বেটা দৌড়ের উপর’ নাটকটি দর্শকরা বেশ পছন্দ করেছেন। আমি প্রচুর ফোনকল পেয়েছি। সামনে আরও ভালো কিছু কাজ করার ইচ্ছে রয়েছে।

অহনার অভিনয়ে নতুন ধারাবাহিকের মধ্যে রয়েছে কায়সারের ‘রূপালী প্রান্তর’, এস এ হক অলিকের ‘আয়না ঘর’, সৈয়দ শাকিলের ‘শান্তি অধিদপ্তর’, মুজিবুল হকের ‘মন থেকে দূরে’ প্রভৃতি। অভিনয়ের পাশাপাশি অন্য অনেক তারকার মতো এবার ব্যবসায়ীর খাতায় নাম লিখিয়েছেন অহনাও। চলতি মাসেই তার হাত ধরে অহনা’স ইভেন্ট নামে একটি ইভেন্ট ম্যানেজম্যান্ট প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুরু হয়েছে। এরইমধ্যে বেশ কয়েকটি ইভেন্ট বেশ সফলতার সঙ্গেই তিনি শেষ করেছেন এ প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে।

এ বিষয়ে অহনা বলেন, আমি মনে করি শিল্পীদের শিল্পকর্মের পাশাপাশি অন্য কিছু একটা করা উচিত। তাতে স্বাবলম্বী থাকা যায়। তাছাড়া আমার এখনো বিয়ে হয়নি। বিয়ের পর যদি শ্বশুর বাড়ি থেকে আমার অভিনয় করা নিয়ে আপত্তি থাকে তখন এই ব্যবসা নিয়েই নিজেকে ব্যস্ত রাখতে পারবো।

কারণ, আমি সবসময়ই আত্মনির্ভরশীল একজন মানুষ। অহনা আরো জানান, শিগগিরই তিনি অন্য আরেক পরিচয়ে নিজেকে পরিচিত করতে যাচ্ছেন। রাজধানীর উত্তরায় একটি বিউটি পার্লার চালু করতে যাচ্ছেন তিনি।মানবজমিন।