মেইন ম্যেনু

‘আমার বাড়ির জানালা দিয়ে রাশিয়া দেখা যায়’

রাজনীতিতে ভুলভাবে ব্যবহৃত মজার কিছু বক্তব্য নিয়ে এই লেখা তৈরি হয়েছে। এমন কিছু বক্তব্য আছে, যা নেতারা কখনো উচ্চারণও করেননি। অথচ তাদের নামের সঙ্গে জুড়ে আছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দল থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প সম্প্রতি মহাত্মা গান্ধীর কিছু কথা উল্লেখ করে অনলাইনে পোস্ট করেছেন। কিন্তু মহাত্মা ‍গান্ধী কখনোই এমন কোনো কথা বলেননি। আসুন জেনে নেই, এমন কিছু ভুল বক্তব্য বা উক্তি-

১০. আমার বাড়ির জানালা দিয়ে রাশিয়া দেখা যায় : সারা পালিন

যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান রাজনীতিক ও প্রাক্তন ভাইস প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী সারা পালিনের নামে চলা এই বক্তব্য আদৌ তিনি বলেননি! কথাটি বলেছিলেন মূলত কমেডিয়ান টিনা ফ্রে।

৯. আমি ইন্টারনেট আবিস্কার করেছি : আল গোর

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের সময়ে ভাইস প্রেসিডেন্ট ছিলেন আল গোর। তিনি বলেছিলেন, কংগ্রেসের সদস্য হিসেবে ইন্টারনেটের উন্নয়নে আমি অবদান রেখেছি। কিন্ত সেটাই তার প্রতিদ্বন্দ্বীরা চালিয়ে দিয়েছে এই বলে যে, আল গোর বলেছেন, ‘আমি ইন্টারনেট আবিষ্কার করেছি।’

৮. প্রথমে তারা তোমাকে অবজ্ঞা করবে, তারপর তোমাকে নিয়ে হাসাহাসি করবে, তারপর আক্রমণ করবে। এরপর তুমি জিতবে : মহাত্মা গান্ধী

এই কথাটি যদিও মহাত্মা গান্ধীর জীবনদর্শের সঙ্গে পুরোপুরি মিলে যায় তবুও তিনি একথা কোথাও বলেছেন তার প্রমাণ পাওয়া যায় না। বরং নিকোলাস ক্লেইন ১৯১৮ সালে এমন একটি কথা বলেন, ‘প্রথমে তারা তোমাকে অবজ্ঞা করবে, তারপর হাসাহাসি করবে, এরপর আক্রমণ করবে এবং তারপর তারা তোমার স্মৃতিসৌধ বানাবে।’ কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্প ইন্সটাগ্রামে এই বক্তব্য গান্ধীর নামে চালিয়ে দিয়েছেন।

৭. তাদেরকে তাহলে কেক খেতে দিন : মেরি অ্যান্তনিতি

রুশো বলেছেন, অস্ট্রেলিয়ার রাজনীতিবিদ মেরি অ্যান্তনিতি এটা বলেননি, এটা বলেছিলেন রাজা চতুর্দশ লুইয়ের স্ত্রী! যখন তিনি জানলেন প্রজাদের ঘরে খাবার রুটি পর্যন্ত নেই, তখন তিনি বলে উঠেছিলেন, তাহলে তাদের পেস্ট্রি খেতে দিন!

৬. শেষ পর্যন্ত তুমিও ব্রুতে : জুলিয়াস সিজার

যখন তার বন্ধু ব্রুতেও ছুরি হাতে তার দিকে এগিয়ে আসে তখন না কি তিনি অবাক হয়ে এ কথা বলেছিন, শেষ পর্যন্ত তুমিও, ব্রুতে? কিন্ত ইতিহাসবিদরা বলছেন, সিজার এ কথা বলেননি! সেক্সপিয়ারের আগেই অক্সফোর্ডের অন্য এক নাটকে দেখা যায়, সিজার বলছেন, ‘ব্রুতে একদিন তোমাকেও এই পরিণতি ভোগ করতে হবে।’

৫. আমি সম্প্রতি লাতিন আমেরিকা গিয়েছিলাম কিন্ত স্কুলে ভালো মতো লাতিন না শেখার কারণে আমি ওদের সঙ্গে কথা বলতে পারিনি : ড্যান কোয়াইলে

লাতিন আমেরিকার মানুষ যে লাতিনে কথা বলে না, তা কোয়াইলে জানেন বৈকি! বরং এ কথা বলেছিলেন রোডস আইল্যান্ডের রিপাবলিকান নেতা ক্লাউডিন স্নাইডার। উল্লেখ্য, ড্যান কোয়াইলে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৪তম ভাইস প্রেসিডেন্ট।

৪. একজন মানুষের মৃত্যু দুঃখজনক ঘটনা কিন্ত হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু শুধু একটা পরিসংখ্যান : জোসেফ স্টালিন

এমন নিষ্ঠুর কথাটি স্টালিন বলেছেন, তার কোনো প্রমাণ নেই। বরং এটি বলেছিলেন, জার্মানির ব্যাঙ্গ লেখক কার্ট তাচোস্কি, তার ‘ফ্রেঞ্চ হিউমার’ বইয়ে!

৩. পরিসমাপ্তি প্রয়োজন নির্দেশ করে : ম্যাকিয়াভেলি

ম্যাকিয়াভেলির ‘প্রিন্সেস’ বইটির ভুল ব্যাখ্যা করে এই বাক্যটি দাঁড় করানো হয়, যার জন্য ভুল ব্যাখ্যাদাতা সাজাও ভোগ করেন।

২. ধনী হওয়াটা গৌরবের : ড্যাং জিওপিং

ড্যাংয়ের নামে প্রচলিত এই প্রবচনটি মূলত লেখক অরভিল শেচেলের ১৯৮৪ সালে প্রকাশিত বই ‘ধনী হওয়া গৌরবের ব্যাপার : পরিপ্রেক্ষিত চীন ’৮০’ বই থেকে নেওয়া। কিন্তু লেখক সেখানে কোথাও উল্লেখ করেননি এটা ড্যাং জিওপিং বলেছেন।

১. আমি একটি রসে টইটুম্বুর রসগোল্লা : জন এফ কেনেডি

এই রসালো মন্তব্যটি আদতে কিন্ত এমনটি নয়। সাংবাদিক রবার্ট লোচনার একটি জার্মান বাক্য ভুলভাবে অনুবাদ করে এই ঝামেলাটি পাকান। বাক্যটি ছিল –‘ইচ বেন অ্যান বার্লিনার’। যার অর্থ ‘আমরা সবাই স্টেকের মতো সেদ্ধ হচ্ছি।’

কখনো জ্ঞানের ঘাটতি, কখনো ভুল আবার কখনো উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে রাজনৈতিক নেতাদের নামে বক্তব্য বিকৃত করা হয়। বাংলাদেশেও রাজনীতিকদের নামে চালিয়ে দেওয়া হচ্ছে, এমন ভুল বকব্য প্রচলিত আছে।