মেইন ম্যেনু

আমি ও অপু ভালো আছি : মাহি

বিয়ে করার পর থেকেই নানা ঝক্কিঝামেলা সামাল দিয়েছেন ঢালিউড নায়িকা মাহিয়া মাহি। গুঞ্জন শোনা যায় নতুন বিয়েটাও নাকি ভেঙে যাচ্ছে। আসলেই কী তাই? আজ সোমবার মাহির সাথে কথা হয় । তিনি জানালেন, বেশ আছেন, বললেন, ‘আমি এত দিন চুপচাপ ছিলাম। অনেক নেতিবাচক খবর নিজের পড়েছি। সব খবরই মিথ্যা। আমি এখন ঢাকায় নিজের বাড়িতে আছি। আমি ও অপু ভালো আছি। আমাদের দারুণ সময় কাটছে। শাওন আমার ছোটবেলার বন্ধু। ওর দ্বারা আমার কোনো ক্ষতি হবে, এটা আশা করা যায় না। এটা হয়তো তৃতীয় পক্ষের ষড়যন্ত্র। তাই মামলাটি প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ’

মাহি ও তাঁর কথিত স্বামী শাহরিয়ার ইসলাম শাওনের পরিবারের মধ্যে সম্প্রতি সমঝোতা হয়েছে। এবিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শাহরিয়ার ইসলাম শাওনের চাচা আবুল হাশেম।

আবুল হাশেম বলেন, ‘আমাদের ও মাহির পরিবারের মধ্যে সমঝোতা হয়েছে। শাওনের বিরুদ্ধে মামলাটি মাহি শিগগির প্রত্যাহার করে নেবেন। আগামী ১৬ জুন শাওনের জেল থেকে বের হওয়ার কথা রয়েছে। সমঝোতার শর্ত অনুযায়ী শাওন জেল থেকে বেরিয়ে মাহির ক্ষতি হয় এমন কিছুই করতে পারবেন না। আর আমি এ বিষয়ে কিছুই বলতে পারব না। আমি দুঃখিত।’

গত ২৫ মে কম্পিউটার প্রকৌশলী পারভেজ মাহমুদ অপুর সঙ্গে বিয়ে হয় চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির। গণমাধ্যমে সবাইকে জানিয়ে বিয়ে করেছিলেন মাহি। কিন্তু বিয়ের একদিন পরই ফেসবুকে মাহির সঙ্গে তাঁর বন্ধু শাওনের কিছু ছবি ফেসবুক ও কিছু অনলাইন পোর্টালের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। পরে মাহি রাজধানীর উত্তরা থানায় তথ্যপ্রযুক্তি আইনে শাওনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরে শাওনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ দুদিনের রিমান্ডে নেয়। গত ৩১ মে রিমান্ড শেষে শাওনকে আদালত আনা হয়।

আদালত শাওনকে কারাগারে পাঠিয়ে দেন। তখন শাওনের আইনজীবী মো. বেলাল হোসেন বলেছিলেন, ‘গত বছরে শাওন ও মাহির বিয়ে হয়েছিল। আদালতে বিয়ের কাবিননামাসহ প্রয়োজনীয় সব কাগজ জমা দেওয়া হয়েছে।’এনটিভি অনলাইন