মেইন ম্যেনু

আমি কি এই সমাজের ডাস্টবিনে পরে থাকা ময়লা?

Mahbub Kabir Milon স্যার আমি একজন শারীরিক প্রতিবন্ধী। আমার নাম: মশিউল আযম. আমার জেলা: রাজবাড়ী , উপজেলা: পাংশা, গ্রাম: হাবাসপুর। আমার গর্বিত বাবার নাম: Death-রমজান আলী এবং আমার গর্বিত মাতার নাম: খাদিজাতুল কোবারা।

আমার বয়স যখন এক বছর তখন আমি পোলিও রোগে আক্রান্ত হই। পোলিও রোগে আক্রান্ত হবার কারনে আমার দুটি পা আস্তে আস্তে চিকন হয়ে যায় তার পর থেকে আমি হাটতে পারিনা। হামু দিয়ে চলা ফেরা করি। তখন থেকেই আমার কষ্টের জীবন নিয়ে এই পথচলা শুরু করেছিলাম।

আমি এই পৃথিবীতে জন্ম গ্রহণ করেছি সম্ভবত অনেক পাপের বোঝা মাথায় নিয়ে। আমার জীবনে চারিদিকে ঘিরে ঘৃণা,অবহেলা আর উপহাস খেলা করেছে । ভালবাসা কাকে বলে সেটা কি, তা আমি জানি না। আমি কি এই সমাজের ডাস্টবিনে পরে থাকা ময়লা। তবে আমি নিজের প্রতি কখন বিচলিত না হয়ে আশা হারায় নি। আমি মানুষের কাতারে দাঁড়াবার জন্য, সংগ্রাম করে চলেছি প্রতিটি মুহুর্তে । আমার এই অবহেলা ঘৃণা ও ভালোবাসা হিন জীবনে কখনো পরাজীত হই নি । অমি আমার জীবনের সত্যতাকে আবিষ্কার করিবার জন্য এই পৃথিবীতে বেঁচে আছি.

যখন আমার স্কুলে যাওয়ার বয়স হল তখন আমি আমাদের গ্রামের প্রাইমারি স্কুলে ভতি হই। রাস্তা পাড়ি দিয়ে স্কুলে যেতে হতো। অনেক কষ্ট হয়েছে স্কুলে যাইতে তবুও হাল ছাড়িনি।প্রতিবন্ধী বলে পিছিয়ে থাকিনি। সবার সাথে তাল মিলিয়ে এগিয়ে গিয়েছি সামনের দিকে।

আমার পরিবার সবসময়ই আমাকে সাপোর্ট দিয়েছে। পরিবারের সাপোর্ট না পেলে কোনদিনও হয়ত এই পর্যন্ত আসতে পারতাম না।পরিবারের সহযোগিতা না পেলে আমি হয়ত আল্লাহ রহমতে এই পর্যন্ত আসতে পারতাম না।

আমি এইচ এস সি পাশ করার পর ৬ মাস মেয়াদী কম্পিউটার ট্রেনিং করি। তার পর থেকে আমি অনেক সরকারি/বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরির জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি. কিন্তু এখনো আমার কিছু হচ্ছে না.এ ভাবে আমি গ্রাজুয়েশন (স্নাতক) পাশ করেছি।

স্যার আমি জীবনে অনেক সংগ্রাম করতে করতে আজ এ প্রযন্ত এসেছি. কাদিতে কাদিতে চোখের পানি শুকিয়ে গেছে তবুও এই কান্নার আত্মনাদ একনো আপনাদের চোখে পড়েনি. এই বাংলার মানুষ কি আমার একটি চাকরির ব্যবস্থা করতে পারে না.

স্যার আপনারা ইচ্ছে করলেই আমাকে একটি চাকরি দিতে পারেন .চাকরি টা হলে আমি আমার সারা জীবনের দুঃখ গুলো ভুলে থাকতে পারতাম।

আমার জানা মতে আমি আমার জেলার একমাত্র প্রতিবন্ধী যে কিনা প্রতিবন্ধী জীবন নিয়ে সকল বাঁধা অতিক্রম করছি। সব সরকারী/বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে প্রতিটি মালিকপক্ষ যদি একেকজন প্রতিবন্ধীকে কাজের সুযোগ করে দেন তাহলে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা আর সমাজে বোঝা হয়ে থাকবে না।

তারাও এই সমাজ ও দেশের উন্নয়নের জন্য প্রতিটি সুস্থবল মানুষের মত অগ্রণি ভূমিকা পালন করতে পারবে। সরকারি চাকরিতে প্রতিবন্ধীদের প্রবেশে ১০ শতাংশ কোটা থাকলেও আমার চাকরি হচ্ছে না।স্যার একটু আমার দিকে তাকান,
একটু নজর দিন দয়া করে। দেশের কত উন্নয়নের জোয়ার বইছে কিন্তু আমার জোয়ার কোন সাগরে বইছে বুঝতে পারছিনা।
আমার নাম্বার : 01723962718

ফেইসবুক থেকে নেওয়া