মেইন ম্যেনু

আমি গরুর মাংস খাই… তো?

বাড়িতে গরুর মাংস রাখা ও গরুর মাংস খাওয়ার গুজবে এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে খুন করা হয়েছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের গ্রেটার নয়ডায়। এই ঘটনা নিয়ে উঠেছে নিন্দার ঝড়। গো-মাংস ভক্ষণের এই নারকীয় বিরোধিতার প্রতিবাদে সরব হয়েছেন অনেকেই। প্রখ্যাত লেখিকা শোভা দে টুইট করেছেন, তিনি এই মাত্র গো-মাংস খেলেন। এ জন্য কেউ যদি তাকে মারতে চায় তাহলে তিনি তার মুখোমুখি হতে প্রস্তুত।

গ্রেটার নয়ডার দাদরি এলাকায় গত সোমবার গো-মাংস গুজবে আখলাক নামের এক ব্যক্তির বাড়িতে হামলা চালিয়ে তাকে পিটিয়ে খুন করে একদল উন্মত্ত জনতা। একটি মন্দিরের মাইকে আখলাকের বাড়ির ফ্রিজে গরুর মাংস রাখার কথা ঘোষণা করার পরই কয়েকশ লোক হামলা চালায়। শোভা দে ছাড়াও অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব এই ধর্মান্ধতার তীব্র প্রতিবাদ করেছেন।

ভারতীয় প্রেস কাউন্সিলের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট তথা ভারতের সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি মার্কেন্ডেয় কাটজুও টুইট করেন যে তিনিও গো-মাংস খেয়েছেন, হিম্মত থাকলে তাকে কেউ মেরে দেখাক। কাটজু আরও লিখেছেন, তার লাঠি ওইসব লোকেদের জন্য অপেক্ষা করছে।

বলিউডের প্রবীণ অভিনেতা ঋষি কাপূরও নিজেকে গো-মাংস ভক্ষণকারী হিন্দু বলে দাবি করেছিলেন। তীব্র বিরোধিতার মধ্যেও নিজের মন্তব্যে অনড় তিনি।