মেইন ম্যেনু

‘আমেরিকাকে কূটনৈতিক বহিষ্কারের ‘উপযুক্ত’ জবাব দেওয়া হবে’

বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রশাসন ৩৫ জন রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কারাদেশের এক প্রতিক্রিয়ায় রুশ প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ জানিয়েছেন, পুতিন মার্কিন প্রশাসনের এমন সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ‘উপযুক্ত’ ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দেবেন।

তিনি বলেন, এই বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত দেশ দু’টির মধ্যকার সম্পর্ককে ক্ষতিগ্রস্ত করবে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে কথিত হস্তক্ষেপে জড়িত থাকার অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত ৩৫ জন রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করেছে দেশটি। ওয়াশিংটন ডিসি এবং সান ফ্রান্সিসকো কনসুলেটের এসব কূটনীতিক এবং তাদের পরিবারকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে মার্কিন প্রশাসন।

এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যেই বর্তমান মার্কিন প্রশাসনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। এর আগে এমন সিদ্ধান্তের কার্যকারিতা নিয়েও পেসকভ সংশয় প্রকাশ করেছেন।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, রাশিয়ার বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় আরো যুক্ত হয়েছে নিউ ইয়র্ক ও ম্যারিল্যান্ডে দু’টি রুশ স্থাপনা। যা মার্কিন কর্তৃপক্ষ বন্ধ করে দিয়েছে। মার্কিন প্রশাসনের দাবি, গোয়েন্দা তথ্য কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হতো। আর মস্কোতে যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতিকদের হয়রানির বিরুদ্ধেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সেই সঙ্গে রুশ গোয়েন্দা সংস্থার সাথে সম্পৃক্ততার অভিযোগে নয়টি সংস্থা ও ব্যক্তির ওপরেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

এক বিবৃতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, ‘রাশিয়ার কর্মকাণ্ডের ব্যাপারে সব মার্কিন নাগরিকেরই সচেতন থাকা উচিত।’ সেই সঙ্গে মার্কিন বিশেষজ্ঞদেরও রুশ সাইবার হামলার ঝুঁকি চিহ্নিত করা এবং তা থেকে রেহাই পাওয়ার উপায় খোঁজার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।