মেইন ম্যেনু

আরেকটা সুযোগ পাচ্ছেন রিয়াদ-লিটন?

এগারো নম্বর হোয়াইটওয়াশ পেতে মরিয়া বাংলাদেশ। তাই শেষ ম্যাচে কোনো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে নারাজ টিমের নীতি-নির্ধারকরা। মঙ্গলবার বেশ কয়েকটি সূত্র দাবি করেছে, শেষ ওয়ানডেতে কোনো পরিবর্তন আনার সম্ভাবনা নেই। শেষ মুহূর্তে মাশরাফি যদি বিশ্রামে যান, তবে অভিষেক হয়ে যেতে পারে পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বির। মাশরাফি বিশ্রামে যাবেন না কি না, গতকাল বিকেল পর্যন্ত সেটা জানা যায়নি। আসলে জানার উপায়ও ছিল না। টিম ম্যানেজমেন্ট কাপ্তানকে বিশ্রামের প্রস্তাব দিলেও গতকাল হালচাল দেখে মনে হয়েছে, কাপ্তান শেষ ম্যাচেও থাকছেন।

ওদিকে লিটন দাস এবং মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের ওপর ভরসা রাখতে চাইছেন টিমের বড় একটা অংশ। বিশেষ করে কোচ এবং অধিনায়ক। বিশ্বকাপের পর রিয়াদ নিজের ছায়া হয়ে আছেন। লিটনের অবস্থা আরো বেশি ঝুঁকিপূর্ণ। দেশের ঘরোয়া ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যান আন্তর্জাতিক অঙ্গনে একদম নিষ্প্রভ। আটটি একদিনের ম্যাচে অর্ধশতকের দেখা পাননি। সর্বোচ্চ ৩৬। তবু মাশরাফি তার ওপর আস্থা রাখার কথা বলেছেন।

আজ দুপুর একটায় মিরপুরে মুখোমুখি হবে দুই দল। তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে ইতিমধ্যে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ।

টিমের বাইরের পরিবেশ কিছুটা গরম জুবায়ের ইস্যু নিয়ে। নির্বাচকরা জুবায়েরকে নাকি দলেই নিতে চাননি। তাদের ইচ্ছে ছিল রুবেল অথবা সানজামুল ইসলামকে দলে নেয়া। কিন্তু কোচ দাবি করেন, এই সিরিজে জুবায়েরকে প্রয়োজন পড়বে। শোনা গেল, প্রথম দুই ওয়ানডেতে সেই কোচই নাকি জুবায়েরকে খেলাননি। শেষ ওয়ানডেতেও তিনি টিম কম্বিনেশন ভাঙতে চাচ্ছেন না।