মেইন ম্যেনু

আরেকটি মাইলফলক, মহাকাশেও থাকবে বাংলাদেশ-ভারত

ভারতের ত্রিপুরা থেকে বিদ্যুৎ আনার মধ্য দিয়ে সরকারের রাজনৈতিক প্রতিশ্রুতি পূরণ হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, মহাকাশেও ভারত বাংলাদেশের সঙ্গে এগিয়ে যেতে আগ্রহী।

বুধবার (২৩ মার্চ) সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আন্তঃদেশীয় গ্রিড সংযোগ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। অন্যদিকে ভারত থেকে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘প্রতিবেশির সঙ্গে সম্পর্ক কেমন হওয়া উচিত তার প্রমাণ বাংলাদেশ-ভারতের বর্তমান সম্পর্ক। জল, স্থল, বিদ্যুৎ সবখানেই ভারত-বাংলাদেশ একসঙ্গে কাজ করছে। এবার মহাকাশেও ভারত বাংলাদেশের সঙ্গে একসাথে এগিয়ে যেতে আগ্রহী।’

সবশেষে আজকের টি-টোয়েন্টি ম্যাচের জন্য দু’দলের জন্য শুভকামনা জানান নরেন্দ্র মোদি।

ত্রিপুরা থেকে বিদ্যুৎ আমদানি এবং বাংলাদেশ থেকে ব্যান্ডউইথ রপ্তানি দুই দেশের সম্পর্কের ক্ষেত্রে আরেকটি মাইলফলক স্থাপন করলো বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী। অন্যদিকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি একে ঐতিহাসিক বলে উল্লেখ করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বিদ্যুৎ আমদানি আমাদের জ্বালানির চাহিদা পূরণ হবে। বাংলাদেশ থেকে ব্যান্ডউইথ রপ্তানিতে ত্রিপুরাসহ এ অঞ্চলের বিকাশে ভূমিকা রাখবে।

এ লাইন দিয়ে ত্রিপুরার পালাটানা গ্যাসভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে ১শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আনা হবে। বিদ্যুৎ আনতে বাংলাদেশ অংশে ২৭.৮ কিমি ও ভারতে অংশে ২৪ কিমি সঞ্চালন লাইন নির্মাণ করা হয়েছে। লাইনটি বাংলাদেশে কুমিল্লার কসবা দিয়ে প্রবেশ করেছে। সব মিলিয়ে গ্রিড লাইন‌টির মোট দৈর্ঘ্য প্রায় ৫২ কি‌লো‌মিটার।