মেইন ম্যেনু

আরো সময় পাবেন সিটিসেল গ্রাহকরা : তারানা

মৃতপ্রায় সিটিসেলের গ্রাহকদের ১৬ অাগস্টের মধ্যে বিকল্প সেবা নিতে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির সময় বেঁধে দেওয়ার সিদ্ধান্তে ‘অপরিপক্কতা’ বলে আখ্যায়িত করেছেন টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। তিনি বলেন, কৌশলগত ভুলের খাদে পড়েছে সিটিসেল। সিটিসেল বন্ধ হবে কি না, সে সিদ্ধান্ত দেবে সরকার।

সচিবালয়ে রোববার সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে তারানা বলেন, আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে কীভাবে অপারেটর বদল করতে পারি? আমার মনে হয়, এতে বিটিআরসির সিদ্ধান্তগত একটু অপরিপক্কতা প্রকাশ পেয়েছে। বিকল্প সেবা নিতে সিটিসেল গ্রাহকদের আরো সময় দেওয়া হবে।

তারানা বলেন, পট করেই সুইচ ওভার করতে বলতে পারি না। আমার সঙ্গে আলোচনা ছাড়াই বিটিআরসি চিঠি ইস্যু করেছে। আলোচনার প্রয়োজন ছিল, তাহলে আইনগত বিষয়গুলো জানতে পারতাম।

টু-জি তরঙ্গ ফি, বার্ষিক লাইসেন্স ফি, বার্ষিক তরঙ্গ ফি, রেভিনিউ শেয়ারিংসহ বিভিন্ন খাতে সিটিসেলের কাছে সরকারের পাওনা দাঁড়িয়েছে ৪৭৭ কোটি ৫১ লাখ টাকা।

বার বার তাগাদা দিয়েও ওই টাকা আদায় করতে না পেরে সিটিসেলকে ১৬ অাগস্ট পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়ে তরঙ্গ বাতিল ও অপারেশনাল কার্যক্রম বন্ধসহ প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছে বিটিআরসি।