মেইন ম্যেনু

আর্জেন্টিনার সঙ্গে যে বিশ্বকাপে বাংলাদেশও খেলেছিল

১৯৭৯ সাল। আইসিসির তত্ত্বাবধানে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের তথা আইসিসি ট্রফির আয়োজক ইংল্যান্ড। বিভিন্ন অঞ্চলের আইসিসির অ্যাসোসিয়েট সদস্য দেশের ১৫টি দল নিয়ে আয়োজিত হয়েছিল এই টুর্নামেন্ট। দলগুলোকে ৩টি গ্রুপে ভাগ করে এক মাসব্যাপী (২২ মে থেকে ২১ জুন) অনুষ্ঠিত হয়েছিল বাছাই পর্ব। সেখান থেকে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ দল সুযোগ পেয়েছিল ১৯৭৯ বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলার।

প্রথমবারের মতো এই বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে খেলেছিল ফুটবল পরাশক্তি আর্জেন্টিনাও। খেলেছিল বাংলাদেশ। আর্জেন্টিনা অবশ্য একটি ম্যাচেও জয় পায়নি। আর্জেন্টিনা ছাড়া বাছাই পর্বে অংশ নিয়েছিল ফুটবল খেলুড়ে দেশ ডেনমার্ক এবং নেদারল্যান্ডসও। বর্তমানে অবশ্য নেদারল্যান্ডস ক্রিকেটেও ভালো করতে শুরু করেছে।

বাছাই পর্বে বাংলাদেশ চারটি ম্যাচের ২টিতে জয় পেয়েছিল। ডেনমার্ক উঠেছিল সেমিফাইনালে। আর হল্যান্ড মাত্র একটি ম্যাচ জিতেছিল।

১৯৭৯ আইসিসি ট্রফির ‘এ’ গ্রুপে ছিল বারমুডা, ইস্ট আফ্রিকা, পাপুয়া নিউগিনি, সিঙ্গাপুর ও আর্জেন্টিনা। ‘বি’ গ্রুপে ছিল ডেনমার্ক, কানাডা, বাংলাদেশ, ফিজি ও মালয়েশিয়া। ‘সি’ গ্রুপে শ্রীলঙ্কা, ওয়েলস, যুক্তরাষ্ট্র, নেদারল্যান্ডস ও ইসরায়েল।

আর্জেন্টিনা তাদের প্রথম ম্যাচে সিঙ্গাপুরের কাছে ১ উইকেটে হার মানে। দ্বিতীয় ম্যাচে ইস্ট আফ্রিকার কাছে ৫ উইকেটের ব্যবধানে হারে। পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে তাদের তৃতীয় ম্যাচটি বৃষ্টির কারণে ভেস্তে যায়। চতুর্থ ম্যাচে বারমুডার কাছে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারে আর্জেন্টিনা।

‘এ’ গ্রুপ থেকে বারমুডা সেমিফাইনালে ওঠে। ‘বি’ গ্রুপ থেকে ডেনমার্ক এবং ‘সি’ গ্রুপ থেকে শ্রীলঙ্কা। এই তিন দলের বাইরে সর্বোচ্চ ১২ পয়েন্ট নিয়ে ‘বি’ গ্রুপ থেকে সেমিফাইনালে উঠেছিল কানাডা। বাংলাদেশ আর একটি ম্যাচে জয় পেলেই ১৯৭৯ আইসিসি ট্রফির সেমিফাইনাল খেলতে পারত।

বাংলাদেশ গ্রুপ পর্বে ফিজি ও মালয়েশিয়ার বিপক্ষে যথাক্রমে ২২ রান ও ৭ উইকেটে জয় পেয়েছিল। তবে ডেনমার্কের কাছে ১০ রানে ও কানাডার কাছে ৪৯ রানে হেরেছিল। বাংলাদেশের বোলার আশরাফুল হক চার ম্যাচে ১০ উইকেট নিয়ে সেরা বোলারদের তালিকায় চতুর্থ হয়েছিলেন।

সেমিফাইনালে শ্রীলঙ্কা মুখোমুখি হয় ডেনমার্কের। আর বারমুডা মুখোমুখি হয় কানাডার। ফাইনালে ওঠে কানাডা ও শ্রীলঙ্কা। ফাইনালে কানাডাকে ৬০ রানে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় শ্রীলঙ্কা। তবে ১৯৭৯ বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পায় ফাইনালিস্ট দুটি দলই।