মেইন ম্যেনু

‘আল্লাহু আকবর’ বলে হামলা শুরু

ঢাকার অভিজাত এলাকা গুলশানের একটি রেস্তোরাঁয় ‘আল্লাহু আকবর’ বলে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়েছে বলে একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন।

শুক্রবার রাত পৌনে ৯টার দিকে গুলশান ২ নম্বরের কাছের ওই রেস্তোরাঁয় হামলা হয়। রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত সেখানে অস্ত্রধারীরা অবস্থান করছিল বলে র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ জানিয়েছেন।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, অস্ত্রধারীরা রেস্তোরাঁয় ঢোকার পর কেউ কেউ বেরিয়ে এলেও বেশ কয়েকজন এখনও সেখানে আটকে আছেন। তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

রাত সাড়ে ১০টার দিকে সেখান থেকে বেরিয়ে আসা একজনের বক্তব্য সরাসরি সম্প্রচার হয় কয়েকটি টেলিভিশনে।

ওই রেস্তোরাঁর ব্যবস্থাপক পরিচয় দেওয়া সুমন রেজা বলেন, “রাত পৌনে ৯টার দিকে হামলাকারীরা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে রেস্টুরেন্টে ঢুকে পড়ে। এ সময় তারা ‘আল্লাহু আকবর’ বলতে থাকে।

“শব্দ শোনার পর হোটেলে অবস্থানরত অন্তত ২০ জন বিদেশি অতিথি টেবিলের নিচে আশ্রয় নেন।”

হামলাকারীদের হাতে ছোরা, আগ্নেয়াস্ত্রসহ অন্যান্য অস্ত্র ছিল বলে জানান তিনি।
সুমন বলেন, এক পর্যায়ে তিনি ভবনের ছাদে উঠে লাফিয়ে পাশের ভবনে চলে আসেন।

“আমাদের অনেক কর্মী ভেতরে আটকা আছে। তাদের ফোনে কল হচ্ছে, কিন্তু কেউ রিসিভ করছে না, কেটেও দিচ্ছে না।”

তিনি কথা বলার মধ্যেই বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়।

এরপর সেখান থেকে বেশ কয়েকজন পুলিশ সদস্যকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে আনতে দেখা যায়।

এ ঘটনায় আহত বনানী থানার ওসি সালাহউদ্দিন মারা গেছেন বলে মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মারুফ হোসেন জানিয়েছেন।

আহত আরও ১৫ থেকে ২০ জনকে ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে ওই হাসপাতালের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন।