মেইন ম্যেনু

আশুলিয়ায় পোশাক শ্রমিক স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ, স্বামী পালাতক

টিপু সুলতান (রবিন) : সাভারে আশুলিয়ার নামা বাইপাইল এলাকায় ফাহিমা বেগম(১৮) নামে এক পোশাক শ্রমিককে জবাই করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তারা স্বামীর বিরুদ্ধে। এঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী মজনু মিয়া পলাতক রয়েছে।

মজনু মিয়ার চাচাতো ভাই সুজন মিয়া জানায় আশুলিয়ার নামা বাইপাইল এলাকার মনির মন্ডলের বাড়ির একটি কক্ষ একমাস আগে ভাড়া করে থাকতে শুরু করেন স্থানীয় ফাউন্টেইন পোশাক কারখানার ফাহিমা ও মজনু দম্পতি।

কারখানা থেকে ফিরে প্রতিদিনের মতো রাতে খাওয়া-দাওয়া সেরে রাতে ঘুমাতে যায় তারা।

সকালে চাচাতো ভাই সুজন ও তার স্ত্রী বন্যা ডাকাডাকি করে তাদের সারা না পেয়ে দরজা ধাক্কা দিয়ে ভেতরে ঢুকে ফাহিমার হাত বাধা জবাই করা মরদহে দেখতে পায়।

এসময় আশুলিয়া থানা পুলিশকে খবর দিলে দুপুরে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ।

এঘটনায় হত্যাকান্ডের পর থেকে পলাতক রয়েছে নিহতের স্বামী মজনু মিয়া।

মজনুর চাচাতো ভাই সুজন মিয়া জানায় নিহত ফাহিমার সাথে মজনুর কোন পারিবারিক কলহ ছিলো না তারা প্রতিদিনের মতই রাতের কাবার খেয়ে ঘুমোতে যায় পরে আজ শুক্রবার সকালে সুজন মিয়ার স্ত্রী বন্যা বেগম ঘরের দরজা খুলে ফাহিমার মৃতদেহ দেখতে পেয়ে চিৎকার করে পরে আশে পাশের ভাড়াটিয়ারা বিষয়টি আশুলিয়া থানায় জানালে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশটি থানায় নিয়ে যায়।
এঘটনায় আশুলিয়া থানার উপপরিদর্শক এস,আই শাহ জালাল জানায়,প্রথমিক ভাবে হত্যাকান্ডের পর থেকে মজনু মিয়া পলাতক থাকায় হত্যাকান্ডের সাথে তার জড়িত থাকার বিষয়ে সন্দেহ করছে তারা।

নিহত ফাহিমা বেগম জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জ থানার আম্রিতলা এলাকার মো: আহসান আলীর মেয়ে।