মেইন ম্যেনু

আহলে হাদিস জঙ্গি প্রজনন কেন্দ্র

সব মসজিদে নয় শুধু আহলে হাদিসের মসজিদগুলোতে কী খুতবা দেয়া হয় সেটা দেখা প্রয়োজন, আহলে হাদিস বর্তমানে জঙ্গি প্রজনন কেন্দ্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে।

শনিবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটি (ডিআরইউ) গোলটেবিল আলোচনা সভায় এমন মন্তব্য করেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মহাসচিব এমএ মতিন। দলটির পক্ষ থেকে ‘ইসলামের নামে তথাকথিত জঙ্গিবাদ: কারণ ও প্রতিকার’ শীর্ষক এই আলোচনার আয়োজন করা হয়।

উল্লেখ্য, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মসজিদগুলোতে জুমার দিন খুতবা পর্যবেক্ষণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এছাড়া ইসলামিক ফাউন্ডেশনও প্রতি শুক্রবার মসজিদে তাদের প্রণিত খুতবার কপি সরবরাহ করছে। এর পরিপ্রেক্ষিতেই উপরোক্ত মন্তব্য করেন এমএ মতিন।

এসময় বক্তারা বলেন, গুলশান হামলায় অংশ নেয়া জঙ্গিরা প্রমাণ করেছে যে, এরা ব্রিটেন-আমেরিকার কারিকুলামে শিক্ষিত উচ্চবিত্ত পরিবার থেকে এসেছে। বর্তমানে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলগুলোতে ক্লাস ফাইভ থেকে ইন্টার লেভেল পর্যন্ত যে ইসলামিক স্টাডিজ পড়ানো হচ্ছে এর লেখক হলেন একজন কনভার্টেড মুসলিম ড. বেলাল ফিলিপস। তিনি আন্তর্জাতিকভাবে পরিচিত একজন জঙ্গিবাদী বুদ্ধিজীবী।

জঙ্গিবাদীরা ওহাবি, সালাফি, খারেজিদের অনুসারী মন্তব্য করে তারা বলেন, শুধু পিস টিভি বন্ধ করলে চলবে না। এ টিভির বক্তা বেলাল ফিলিপস, জাকির নায়েকসহ অন্যদের যারা নানাভাবে প্রত্যক্ষ–পরোক্ষভাবে সন্ত্রাসবাদে সহায়ক ভূমিকা রেখে যাচ্ছে তাদের তৎপরতা বন্ধ করতে হবে।

এসময় বক্তারা সকল প্রকার নাস্তিক্যবাদী চর্চা বন্ধ, আহলে হাদিসের কার্যক্রম নিষিদ্ধ ও চ্যানেল আই এর সত্যের সন্ধানের পরিচালক আল্লামা নুরুল ইসলাম ফারুকীর হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারসহ জঙ্গিবাদ দমনে বৃহত্তর ঐক্যের দাবি জানান।

সংগঠনের চেয়ারম্যান আল্লামা এম এ মান্নানের সভাপতিত্বে আলোচনায় আরো অংশ নেন বাংলাদেশ কল্যানপার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম বীর প্রতীক, অধ্যক্ষ আব্দুল করিম সিরাজনগরী, অধ্যাপক ড. কে এম সাইফুল ইসলাম খান, সাপ্তাহিক আজকের সূর্যোদয়ের প্রধান সম্পাদক খন্দকার মোজাম্মেল হক প্রমুখ।