মেইন ম্যেনু

আ.লীগপন্থি আইনজীবীদের বিভেদ ফের চরমে

সাময়িক বিভেদ ভুলে সর্বাত্মক চেষ্টায় অনেক দিন পর বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের নেতৃত্বে এসেছিলেন আওয়ামী লীগপন্থি আইনজীবীরা। তবে তাদের সেই পুরোনো বিভেদ আবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে।

সদ্যসমাপ্ত বার কাউন্সিল নির্বাচনে বিপুল বিজয়ের পর কে হবেন সংগঠনটির ভাইস চেয়ারম্যান-এটা নিয়েই মূলত এই বিভেদের সৃষ্টি। সব জল্পনা-কল্পনার পর মঙ্গলবার বিকালে আইনজীবীদের সবচেয়ে বড় এই সংগঠনটির ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচন করা হয় আবদুল বাসেত মজুমদারকে। তবে এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে না পেরে বার কাউন্সিল থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন ব্যারিস্টার আমীর-উল ইসলাম। নেতৃত্ব নির্বাচনের এই বৈঠকেও তিনি ছিলেন অনুপস্থিত।

আমীর-উল ইসলাম গণমাধ্যমের কাছে পদত্যাগের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চিঠি দিয়েছেন বলেও জানান।

গত ২৬ আগস্ট বার কাউন্সিলের নির্বাচন হলেও বিভেদের কারণেই এর নেতৃত্ব নির্বাচনে বিলম্ব হয়। জানা যায়, আওয়ামী লীগপন্থি আইনজীবীদের বৈঠকে প্যানেল নেতা আমীর-উল ইসলামকে ভাইস চেয়ারম্যান করার সিদ্ধান্ত হয়। তবে আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক জানিয়ে দেন, যিনি বেশি ভোট পেয়েছেন তিনিই হবেন ভাইস প্রেসিডেন্ট।

এই সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ হন ব্যারিস্টার আমীর। তিনি জানান, বরাবরই যিনি প্যানেলের নেতৃত্বে থাকেন তিনিই ভাইস চেয়ারম্যান হয়ে আসছেন, এটা প্রচলিত রীতি। প্যানেল লিডার হিসেবে তারই ভাইস চেয়ারম্যান হওয়ার কথা। যেহেতু এটা হয়নি তাই তিনি পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এবারের নির্বাচনে আওয়ামী সমর্থিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের প্যানেল থেকে বাসেত মজুমদার ১৫ হাজার ১০৯ ভোট পেয়েছিলেন, আমীর-উল ইসলাম পান ১৪ হাজার ৪৩ ভোট। নির্বাচনে মোট ১৪টি পদের মধ্যে ১১টিতে জয়ী হয়েছে আওয়ামী লীগ সমর্থকরা। পদাধিকার বলে এই সংগঠনের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন অ্যাটর্নি জেনারেল।