মেইন ম্যেনু

আ.লীগের প্রার্থী বাছাই সভায় সংঘর্ষ, আহত ১০

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী বাছাই প্রক্রিয়া নিয়ে কুড়িগ্রামের যাত্রাপুরে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে সংঘর্ষে ১০ জন আহত হয়েছে।

এ সময় সভা মঞ্চ, টেবিল, চেয়ার ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সন্ধ্যায় যাত্রাপুর ইউনিয়নের চাকেন্দা খানপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী বাছাইয়ের জন্য এক বর্ধিত সভা আহবান করা হয়।

সভায় জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য আব্দুল গফুরের বিরুদ্ধে বক্তব্য রাখে।

এসময় বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল গফুরের সমর্থকরা জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সামনে লাঠিসোটা নিয়ে সভাস্থলে হামলা চালায়। এ ঘটনায় ১০ জন আহত হয় এবং সভাস্থলের চেয়ার টেবিল ভাঙচুর করা হয়। পরে উপস্থিত জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আমিনুল ইসলাম মঞ্জু মণ্ডল, সাধারণ সম্পাদক মো. জাফর আলী কোন সিদ্ধান্ত ছাড়াই সভাস্থল ত্যাগ করে।

এ ব্যাপারে যাত্রাপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল গফুর জানান, যাত্রাপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের এক নেতা সভায় আমাকে মনোনয়ন না দেয়ার ব্যাপারে বক্তব্য রাখায় এ ঘটনা ঘটেছে। তবে এতে আমি জড়িত নই।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আকতার হোসেন চিনু জানান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির ঘোষণা অনুযায়ী আমরা প্রতিটি ইউনিয়নে বর্ধিত সভার মাধ্যমে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী বাছাই করে আসছি। এ বাছাই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে উপজেলা আওয়ামী লীগকে দায়িত্ব দেয়া হলেও একটি মহলের উস্কানিতে এ ঘটনা ঘটেছে।