মেইন ম্যেনু

আ.লীগের সম্মেলন : পদ পেতে প্রবাসী নেতারা ঢাকায়

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ২০ তম জাতীয় সম্মেলন আগামী ২২ ও ২৩ অক্টোবর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিত হবে। ক্ষমতার মেয়াদে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া দলটির দ্বিতীয় এই সম্মেলনে কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান করে নিতে অনেকেই সক্রিয় হয়ে উঠেছেন। সেই প্রক্রিয়ায় পিছিয়ে থাকতে চান না প্রবাসী নেতারাও। এ লক্ষ্যে এখন ঢাকায় অবস্থান করছেন একাধিক প্রবাসী নেতা।খবর জাগো নিউজের।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, যুক্তরাজ্য, জাপান থেকে শুরু করে সৌদি আরবের নেতারাও এখন ঢাকায়। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত রোববার সকালে ভারত যাওয়ার আগে কেন্দ্রীয় কমিটির কয়েকজন নেতা তার সঙ্গে দেখা করতে যান।

সে সময় এক প্রবাসী নেতাও কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে দলীয় প্রধানের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন। দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে সালাম বিনিময়ের সময় ওই প্রবাসী নেতাকে উদ্দেশ্য করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তোমরাও চলে এসেছো! ভালোই তো।

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের এক নেতার পোস্টারে দেখা গেছে, বঙ্গবন্ধু এবং প্রধানমন্ত্রীর ছবি এক কর্ণারে ছোট করে দেয়া। আর প্রধানমন্ত্রীর বোন শেখ রেহানা এবং সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ওবায়দুল কাদেরের ছবি খানিকটা বড়ো করে দিয়ে লেখা হয়েছে- ‘বিশ্বরত্ন শেখ রেহানা ও জননেতা ওবায়দুল কাদেরের আশির্বাদপুষ্ট সিলেটের গর্ব আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীকে আসন্ন কাউন্সিলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে দেখতে চাই। প্রচারে আনোয়ারুজ্জামান সমর্থকগোষ্ঠী।’

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কাউন্সিলে যোগ দিতে সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ ছাড়াও বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের শীর্ষ নেতারা ঢাকায় এসেছেন।

তাদের মধ্যে রয়েছেন- যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এম ফজলুর রহমান, অন্যতম সহ-সভাপতি আবুল কাশেম, সাংগঠনিক সম্পাদক (প্রথম) ফারুক আহমেদ, কোষাধ্যক্ষ আবুল মনসুর খান, কার্যকরী পরিষদসদস্য শাহানারা রহমান প্রমুখ।

এছাড়াও এসছেন যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, শ্রমিক লীগ ও ছাত্রলীগের একাধিক নেতাকর্মী।

দলীয় সূত্রমতে, সবার চোখ এখন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পাওয়া।

এদিকে আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনে বগুড়া জেলা সদর থেকে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান। একই সময়ে দেশে অবস্থান করছেন জাপান আওয়ামী লীগ নেতা শামসুল আলম ভুট্টুও।