মেইন ম্যেনু

ইইউতে থাকার জন্য স্বাধীনতা চাইতে পারে স্কটল্যান্ড, উত্তর আয়ার‍ল্যান্ড

ব্রিটেনের গণভোটে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাবার পক্ষে সংখ্যাগরিষ্ঠ রায়ের পর এখন ইউনাইটেড কিংডম অব গ্রেট ব্রিটেন বা যুক্তরাজ্যও টিকে থাকবে কিনা – তা নিয়েও সংশয় তৈরি হয়েছে।

গণভোটের ফলাফল থেকে বোঝা যায়, স্কটল্যান্ড, উত্তর আয়ারল্যান্ড, এবং ওয়েলসেরও একটা অংশের ভোটাররা ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের থাকার পক্ষে ভোট দিয়েছেন – যারা ইংল্যান্ড ছাড়া যুক্তরাজ্যের অংশ অন্য তিনটি রাজ্য।

সুতরাং এখন প্রশ্ন উঠছে, ভোটের এই ফলাফলের পর তারা যুক্তরাজ্যের অংশ থাকবে কিনা।

বিশেষ করে স্কটল্যান্ডে দু বছর আগেই স্বাধীনতা প্রশ্নে এক গণভোটে ১০ শতাংশ ভোটের ব্যবধানে যুক্তরাজ্যে থাকার পক্ষের অংশ জয়ী হয়েছিল। উত্তর আয়ার‍ল্যান্ডে বহু দশক ধরে স্বাধীন আয়ারল্যান্ড প্রজাতন্ত্রের অংশ হবার দাবিতে সশস্ত্র সংগ্রাম চলেছে।

যুক্তরাজ্য ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অংশ হবার পর এ ব্যাপারটা অনেক কমে এসেছিল। তাই প্রশ্ন হলো, সেই পুরোনো দাবিগুলো এবার আবারো উঠবে কিনা।

স্কটল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী নিকোলা স্টার্জিওন বলেছেন, তারা যুক্তরাজ্য থেকে বেরিয়ে গিয়ে স্বাধীন হবার জন্য আরো একটি গণভোট করতে আইন প্রণয়নের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

তিনি বলেন, দু বছর আগে যে পরিস্থিতিতে প্রথম গণভোট হয়েছিল – সে পরিস্থিতি এখন পুরো পাল্টে গেছে।

“বৃহস্পতিবারের গণভোটের ফলে স্কটল্যান্ডকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসতে হবে – যা গণতান্ত্রিকভাবে গ্রহণযোগ্য নয়। তাই এখন স্বাধীনতা প্রশ্নে নতুন গণভোট দরকার।” – বলেন নিকোলা স্টার্জিওন।

উত্তর আয়ারল্যান্ডের সবচেয়ে বড় জাতীয়তাবাদী দল শিন ফেইন-ও বলেছে, আইরিশ প্রজাতন্ত্রের সাথে যুক্ত হবার প্রশ্নে একটি গণভোট করার পক্ষে এখন শক্ত যুক্তি রয়েয়ে।-বিবিসি বাংলা