মেইন ম্যেনু

ইউপি নির্বাচনেও অংশ নিচ্ছে বিএনপি

প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে হতে যাওয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ‘প্রভাব বিস্তার হবে’ জেনেও বিএনপি ওই নির্বাচনে অংশ নেবে বলে জানিয়েছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান।

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর পুরানা পল্টনে বাংলাদেশ ফটোজার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে বাংলাদেশ সংস্কৃতি একাডেমি আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপিকে নির্বাচনমুখি দল হিসেবে অভিহিত করে দলটির এই নীতি নির্ধারক বলেন, বিএনপি নির্বাচন করতে চায়। কিন্তু সেই নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ হতে হবে। ভারতে নির্বাচন কমিশন অনেক বেশি শক্তিশালী। কিন্তু বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশন শক্তিশালী নয়।

‘অবসরের পর রায় লেখা সংবিধান পরিপন্থি’ বলে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার বক্তব্যের পর বিচারাঙ্গনে সৃষ্ট অস্থিরতাকে ‘উচ্চ আদালতে গৃহযুদ্ধ চলছে’ বলে অভিহিত করেন মাহবুবুর রহমান।

তিনি বলেন, উচ্চ আদালত অঙ্গনে একে অপরের পেছনে কথা বলছেন, সেখানে মহাভারতের কুরুক্ষেত্রের মঞ্চায়ন হচ্ছে। প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি মাহমুদুল আমিন বলেছেন, বিচার বিভাগ ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কথা। এই মন্তব্যকে সাধারণভাবে দেখার কোনো সুযোগ নেই।

যথা সময়েই বিএনপির কাউন্সিল হবে জানিয়ে বিএনপির এই নেতা বলেন, এর মাধ্যমে ত্যাগী, যোগ্য ও দলের জন্য নিবেদিতরা নেতৃত্বে আসবেন। নতুন নেতৃত্বই গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা ও জঙ্গিবাদসহ সামনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করবে।

সর্বস্তরের বাংলা ভাষার প্রচলন না হওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করে মাহবুবুর রহমান বলেন, শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বাংলা ভাষা এখন সর্বক্ষেত্রে চালু হয়নি, এটি অত্যন্ত দুঃখের কথা। আদালতের রায় এখনো ইংরেজিতে লেখা হয়। এটা লজ্জার কথা। বিচার বিভাগের জন্যও এটা লজ্জার।

সংগঠনে চেয়ারম্যান মো. হুমায়ুন কবির বেপারীর সভাপতিত্বে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রেজাবুদ্দৌলা চৌধুরী, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া, কৃষকদলের যুগ্মসম্পাদক শাহজাহার মিয়া সম্রাট, ‘দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলন’ সংগঠনের সভাপতি কে এম রাকিবুল ইসলামসহ আরো অনেকে বক্তব্য রাখেন।