মেইন ম্যেনু

ইউপি নির্বাচনে থাকছে ৫ হাজার পর্যবেক্ষক

আসন্ন ইউপি নির্বাচনে প্রথম ধাপে ৯টি সংগঠনের ৪ হাজার ৮৪১ জন স্থানিয় পর্যনবেক্ষক আবেদন করেছে। নির্বাচন কমিশন সূত্রে এ তথ্য জানা যায়। সূত্র জানায়, ২২ মার্চ প্রথম দফা ইউপি নির্বাচনে পর্যচবেক্ষন করার জন্য এসব সংগঠন আবেদন করেছে।

এ বিষয়ে নির্বচন কমিশনার শাহ নেওয়াজ বলেন, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অবাদ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করা হবে। এ নির্বাচনে দেশি বিদেশি পর্যবেক্ষক ও সাংবাদিকরা পর্যবেক্ষন করবেন। শান্তিপূর্ণ ভাবে নির্বাচন করার লক্ষে এবং নির্বাচনী বিভিন্ন মেয়াদের কারণে ৬টি ধাপে নির্বাচন করা হচ্ছে।

প্রথম ধাপের নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী প্রার্থীরা আগামী ২ মার্চে প্রতীক বরাদ্দের পরে নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে পারবেন। এর আগে কেউ তা পারবেন না। কারণ বর্তমানে ছেলে-মেয়েদের এসএসসি পরীক্ষা চলছে। তিনি বলেন, পৌর নির্বাচনে বিদেশী কোন পর্যবেক্ষক না থাকলেও আমি আশা করি এ বার ইউপিতে পর্যবেক্ষক থাকবে।

প্রথম ধাপে ইউপি নির্বাচনে কেন্দ্রিয় পর্যযবেক্ষক থাকবে ১২০ টি। কেন্দ্রিয় পর্যবেক্ষক গুলো হলো, জাতীয় নির্বাচন পর্যকবেক্ষক পরিষদ জনিপপের ৫, বাংলাদেশ মানবাধিকার সমন্বয় পরিষদ-বামসপ ১৫, ডেক্রেসিওয়াচ ৮০, আইন সহায়তা কেন্দ্র আসক ফাউন্ডেশন ২০ জন।

আর স্থানীয় পর্যায়ে পর্যববেক্ষক থাকবে ৪৮১৪ টি। এসব হলো, জাতীয নির্বাচন পর্যবেক্ষক পরিষদ জনিপপের ৫জন, আইন সহায়তা কেন্দ্র আসক ফাউন্ডেশন ৩৭৬০ জন, ব্রতী ৩০০জন, সোসাইটি ফর রুরাল বেসিক নীড শ্রাবন ৭০৮ জন, পলিসি রিসার্স স্টাডিজ পাউন্ডেশন ( পি.আর.এস.কে)১৪ জন, বাকেরগঞ্জ ফোরাম ১২ জন, সাহিত্য ও সাংস্কৃত উন্নয়ন পরিষদ ১৫ জন ।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে দেশে ৪ হাজার ৫৭১টি ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে। স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন, ২০০৯-এর ২৯ (৩) ধারা অনুযায়ী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তারিখ পাঁচ বছর পূর্ণ হওয়ার আগের ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করার বিধান রয়েছে। এ হিসাবে গত বছরের অক্টোবর থেকে চলতি বছরের জুনের মধ্যে সবগুলো ইউপির নির্বাচন শেষ করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।