মেইন ম্যেনু

ইউপি নির্বাচন বর্জন না করার সিদ্ধান্ত বিএনপির

নানা অনিয়মের অভিযোগ করা সত্ত্বেও চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বর্জন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে দলটি।

সোমবার রাতে গুলশানস্থ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান বিএনপির নব মনোনীত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি দলটির নেতাকর্মীদেরকে পছন্দের প্রার্থীদের ভোট দিতে আরো সাহসী ভূমিকা পালন করার আহ্বান জানান।

নির্বাচন কমিশনের অযোগ্যতা বারবার প্রমাণিত হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, নির্বাচনকে ৬ ভাগে ভাগ করায় সহিংসতা অনিয়ম কম হওয়ার কথা ছিল। কিন্ত দুই ধাপ পার না হতেই ৪২ জন নিহত হয়েছে। এ নির্বাচন ব্যবস্থা ও সরকারের প্রতি জনগণ আস্থা হারিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন ফখরুল।

নির্বাচন কমিশন কতটা অযোগ্য ও কতটা জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করে তা দেখার জন্য নির্বাচনের শেষ পর্যন্ত থাকার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে এসময় জানান ফখরুল। তিনি বলেন, ইউপি নির্বাচন আসন ভাগাভাগির তামাসায় পরিণত হয়েছে। মৌলিক অধিকার চরম ক্ষুন্ন হচ্ছে। আনন্দের উৎসব বিষাদে রূপ নিয়েছে।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন হত্যার আয়োজনে পরিণত হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, জনগণ নির্বাচনকে এখন ভয় পেতে শুরু করেছে। ইসি ইতিমধ্যে তাদের অযোগ্যতার সর্বোচ্চ পরিচয় দিয়েছে।

এর আগে, সোমবার রাত সোয়া ৯টায় বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক জামায়াত নেতাদের উপস্থিতি ছাড়াই জোটের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।



« (পূর্বের সংবাদ)