মেইন ম্যেনু

আউটসোর্সিং-এর বর্তমান অবস্থা ও ভবিষ্যৎ নিয়ে আলাপচারিতা

ইচ্ছা, চেষ্টা, সাধনা থাকলে সফলতা আসবেই : একান্ত সাক্ষাতকারে জাফার হোসেন যাফি

আউটসোর্সিং এর বর্তমান অবস্থা ও ভবিষ্যৎ নিয়ে সম্প্রতি কথা হলো সফল অনলাইন মার্কেটার ইউটিউবার টি-স্পি্রিং বাংলাদেশের ব্র্যান্ড আ্যম্বাসেডর জাফার হোসেন যাফি’র সাথে। তার সাথে একান্ত আলাপচারিতায় উঠে এসেছে অনলাইন মার্কেটিং সহ বিভিন্ন বিষয়াদি। আওয়ার নিউজ বিডি’র পক্ষ থেকে সাক্ষাতকারটি গ্রহণ করেছেন সালমান সৈকত।

আওয়ার নিউজ বিডিঃ কেমন আছেন? আওয়ার নিউজ বিডি’র পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা রইল।
জাফার হোসেন যাফিঃ হ্যাঁ, ভালই আছি। আওয়ার নিউজ বিডিকেও হৃদয় নিংড়ানো শুভেচ্ছা।

আওয়ার নিউজ বিডিঃ অনলাইন জগতে আপনার কাজ শুরু কবে থেকে?
জাফার হোসেন যাফিঃ আমি আসলে ঠিক ঐভাবে বলতে পারবো না কবে থেকে। তবে, আমি ২০০৭ এর দিকে অনেক বেশি ফিফা গেম খেলতাম মজা করে কম্পিউটারে। তারপর আস্তে আস্তে ২০১০-১১’র দিকে প্রফেশনালি প্রবেশ করলাম অনলাইন জগতে।

আওয়ার নিউজ বিডিঃ কিভাবে আপনি খুব অল্প সময়ে একজন সফল অনলাইন মার্কেটার হলেন?
জাফার হোসেন যাফিঃ আমি নিজেকে কখনো সফল বলি না, এখনও শিখছি। আমি প্রথমে বাংলাদেশের মার্কেটে কাজ করি কিন্তু এখানে খুব বেশি সফলতা না আসার কারনে বাইরের মার্কেটে কাজ করা শুরু করলাম। নিজের একটা নেটওয়ার্ক তৈরি করি এবং তাদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখার চেষ্ঠা করি। এক্ষেত্রে ইংরেজিতে ভাল দক্ষতা থাকাই কাজের ক্ষেত্রটা অনেক সহজ হয়েছে।

আওয়ার নিউজ বিডিঃ অনলাইনে দ্রুত সফলতা পাওয়ার ক্ষেত্রে কোন বিষয়টি বেশি কাজ করে বলে মনে করেন?
জাফার হোসেন যাফিঃ কাজ করার ইচ্ছা, সততা। সবদিকে ছোটাছুটি না করে একটা নির্দিষ্ট বিষয়ের উপর কাজ করা এবং নিজের পরিবারকে সময় দেওয়া।

আওয়ার নিউজ বিডিঃ বাংলাদেশর তরুন সমাজের এই সেক্টরগুলোতে সম্ভাবনা কেমন?
জাফার হোসেন যাফিঃ সম্ভাবনা প্রচুর। এই দেশে জনসংখ্যা অনেক এবং বহু বেকার তরুন আছে যাদের আমরা কাজে লাগাতে পারি কিন্তু আপনি এই সেক্টরগুলোতে আসলেই যে সফল হবেন বিষয়টা তেমন না। যদি কাজ করার প্রবল ইচ্ছা এবং লেগে থাকতে পারেন তাহলে সফলতা আসবে।

আওয়ার নিউজ বিডিঃ আমরা জানি আপনি ইউটিউব নিয়ে কাজ করেন এবং বৃহৎ একটি ইউটিউব কমিউনিটি আপনার এটা কিভাবে দেখেন?
জাফার হোসেন যাফিঃ আমি তাদেরকে ইউটিউব মার্কেটিং নিয়ে বিশ্বমানের ভিডিও তৈরি করে দিয়েছি। যেগুলো তারা অনলাইনে সার্চ দিলেও পাবে না। এইগুলা যদি তারা অনলাইনে খুঁজে পেতো তাহলে এত সাড়া ফেলতো না। এই কমিউনিটিতে এমন ভাল ইউটিউব মার্কেটার আছে যারা বাংলাদেশের ভাল একজন চাকুরিজীবির চাইতেও বেশি উপার্জন করে। আর ভাল কিছু পেলে মানুষ সেখানে যাবে এটাই স্বাভাবিক ।

আওয়ার নিউজ বিডিঃ এমন একটি কমিউনিটি শুরু করার পেছনে আসলে উদ্দেশ্য কী ছিল?
জাফার হোসেন যাফিঃ মানুষ অনলাইনে এত বেশি প্রতারিত হচ্ছিল যা দেখে আমার শুরু করা, যেন এ্মন কিছু মানুষ তৈরি করতে পারি যারা সৎ ও সুন্দরভাবে অনলাইন থেকে উপার্জন করতে পারে ।

আওয়ার নিউজ বিডিঃ অনলাইন মার্কেটপ্লেসে মানুষ যেমন ইনকাম করছে তেমনি প্রতারিতও হচ্ছে এটাকে কিভাবে দেখেন?
জাফার হোসেন যাফিঃ দেখুন এক সময় বাংলাদেশ থেকে অনেক মানুষ বাহিরে যেতো, ঠিক সেই সময় কিছু অসাধু আদম ব্যাবসায়ীরা মানুষের সাথে প্রতারনা করেছে ঠিক তেমনই আজ অনলাইনে ইনকাম এর নামে কোচিং সেন্টার খুলে মানুষের সাথে প্রতারনা করছে। তারা নিজেরাও ভালভাবে জানেনা কিভাবে অনলাইনে ইনকাম করতে হয়। আর মানুষ সহজে এই ফাঁদে পা দিচ্ছে। কারণ সবাই মনে করে খুব সহজে অনলাইনে উপার্জন করা যায়।

আওয়ার নিউজ বিডিঃ আপনি মাঝে বাইরে থেকে চাকরির অফার পেয়েছিলেন কিন্তু করলেন না কেন ?
জাফার হোসেন যাফিঃ ও আপনি দেখছি সবই জানেন। হ্যাঁ, আমেরিকা এর একটি কোম্পানি আমাকে হেড অব মাকেটিং করতে চাইছিল কিন্তু আমি করিনি। কারণ, আমি আমার কমিউনিটিকে সময় দিতে গেলে তাদের কাজে তেমন সময় দিতে পারবো না এই জন্য।

আওয়ার নিউজ বিডিঃ অনলাইন মার্কেটপ্লেসে যাফি’কে অনেকে আইডল মনে করে, এটাকে আপনি কিভাবে দেখেন?
জাফার হোসেন যাফিঃ সবাই যখন এমনটা বলে তখন ভালই লাগে। সাফল্য পেতে হলে কাজ করার ইচ্ছা থাকতে হবে সাথে পরিশ্রমও করতে হবে। আপনি যদি সৎ ভাবে এখানে কাজ করেন তাহলে আপনি অনেক দূর যেতে পারবেন, সাফল্য আপনার কাছে ধরা দিবেই দিবে।

আওয়ার নিউজ বিডিঃ অনেক কথা হলো। আওয়ার নিউজ বিডি’র পাঠকদের জন্য আপনার কিছু বলার আছে কী?
জাফার হোসেন যাফিঃ অবশ্যই, আমি চাই পরিশ্রমী ও উদ্যোমীরা অনলাইন সেক্টরে প্রবেশ করুন। ইচ্ছা, চেষ্টা, সাধনা থাকলে অবশ্যই একদিন সফলতা আসবে।

আওয়ার নিউজ বিডিঃ দীর্ঘক্ষণ আমাদেরকে সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে অশেষ ধন্যবাদ।
জাফার হোসেন যাফিঃ আপনাকেও ধন্যবাদ।