মেইন ম্যেনু

ইতালীতে বড় ভূমিকম্পে বাংলাদেশীরা নিরাপদে আছেন : রাষ্ট্রদূত

মাঈনুল ইসলাম নাসিম, ইতালী থেকে : দুই লক্ষ বাংলাদেশী অধ্যুষিত ইতালীতে বুধবার ভোরের প্রচন্ড ভূমিকম্পে এখন পর্যন্ত কোন বাংলাদেশী হতাহত হবার খবর পাওয়া যায়নি। জাতীয় সংবাদ সংস্থা ‘আনসা’র সর্বশেষ আপডেট অনুযায়ী নিহতের সংখ্যা ৩৮। বাংলাদেশীরা নিরাপদে থাকার বিষয়টি ভূমিকম্পের ৯ ঘন্টা পর নিশ্চিত করেছেন রোমে দায়িত্বরত রাষ্ট্রদূত শাহদৎ হোসেন। তিনি জানিয়েছেন, “এখানকার পররাষ্ট্র ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাথে আমরা সাবর্ক্ষণিক যোগাযোগ রাখছি এবং তারা আমাদের যেমনটা জানিয়েছেন, এখন অবধি বাংলাদেশের কোন নাগরিক হতাহত হবার তথ্য তাদের কাছে নেই”। রাষ্ট্রদূত আরো জানান, “ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলো ও তার আশপাশে কিছু বাংলাদেশীর বসবাস আছে তবে তাদের কারো হতাহত হবার খবর বেসরকারীভাবেও আমরা এখনো পাইনি”।

ঘড়ির কাটায় তখন ভোররাত তিনটা ছত্রিশ। ৬ মাত্রার ভূমিকম্পে কেঁপে উঠে মধ্য ইতালী। লাৎসিও অঞ্চলের রিয়েতি প্রভিন্সের আমাত্রিশে পৌর এলাকার অর্ধেকই পরিণত হয় ধ্বংসস্তুপে। মার্কে অঞ্চলের পেস্কারা দেল ত্রোনতো এবং আস্কোলি পিশেনো’র আরকুয়াতাতে প্রাণ হারান অনেকে। স্থানীয় সময় দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ৩৮টি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ব্যাপক ধ্বংসস্তুপের ভেতর অনেকেই এখনো আটকে আছেন। জীবিতদের উদ্ধারে জোর তৎপরতা চলছে তবে মৃতের সংখ্যা বাড়ার আশংকা করা হচ্ছে জোরেশোরে। ভোররাতের ভূমিকম্পের পর মধ্য ইতালীতে সকাল অবধি আরো অন্তত ৫০ বার ছোট আকারে ভূকম্পন অনুভূত হয়েছে। ধ্বংসযজ্ঞের শিকার বিধ্বস্ত অঞ্চলগুলোতে বুধবার দিনের প্রথম ভাগেই জরুরি ভিত্তিতে সেনাবাহিনীর সদস্যদের তলব করা হয়েছে।