মেইন ম্যেনু

ইনসুলিন ইঞ্জেকশন থেকে মুক্তি মিলবে ডায়াবেটিস রোগীদের

নতুন এক চিকিৎসা পদ্ধতি আবিষ্কার করেছেন বিজ্ঞানীরা। আপাতত ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় রয়েছে এটি। সফল হলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আর ইনসুলিন গ্রহণের প্রয়োজন পড়বে না। এমনকি এই চিকিৎসা পদ্ধতিতে আরথ্রাইটিস, কার্ডিওভাসকুলার ডিজিস এবং স্থূলতার ক্ষেত্রেও উপকার মিলবে বলে আশাপ্রকাশ করেছেন বিজ্ঞানীরা। ইনডিপেনডেন্টের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়।

ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার গবেষকরা এ চিকিৎসা পদ্ধতিকে ‘গেম চেঞ্জার’ বলে মন্তব্য করছেন। এক বিবৃতিতে তারা জানান, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের প্রচলিত এই পদ্ধতির গোটাটাই বদলে দেওয়া সম্ভব হবে যদি সফল হই। আমরা বহুকাল ধরে গবেষণা করছি, টাইপ ১ ডায়াবেটিস রোগীদের দেহ কিভাবে ইনসুলিন উৎপাদন করতে পারেন।

সায়েন্স ট্রান্সলেশন মেডিসিন জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণাপত্রে, ১৪ জন ভলান্টিয়ারের দেহে পরীক্ষমূলকভাবে এই চিকিৎসা পদ্ধতি প্রয়োগ করা হচ্ছে। কিন্তু কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, টাইপ ১ ডায়াবেটিস রোগীদের দেহ ইনসুলিন হরমোন উৎপাদন করতে পারে না। নতুন পদ্ধতিকে ‘টি-রেগুলাটরি ইমিউন সেলস’ নামে ডাকা হচ্ছে, যার সংক্ষিপ্ত নাম ‘ট্রেগস’। এ পদ্ধতিতে সেটে সেলের ওপর শারীরবৃত্তিয় প্রক্রিয়ার আক্রমণ প্রতিহত করা হয়। আবার একই সঙ্গে জীবাণুর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে থাকে কোষ।

গবেষকরা রক্তের নমুনা সংগ্রহ করেন যাতে ২০-৪০ লাখ পর্যন্ত ট্রেগস আছে। এই নমুনায় নতুন পদ্ধতি প্রয়োগে তার ট্রেগসের পরিমাণ ১৫০০ শতাংশ বৃদ্ধি পায়।

ইতিমধ্যে নিউ ইয়র্কের লেনক্স হিল হসপিটালের ডায়াবেটিস স্পেশালিস্ট জানান, এ গবেষণা ফল দারুণ সম্ভাবনাময়।
সূত্র : ফক্স নিউজ