মেইন ম্যেনু

ইমোর অজানা ব্যবহার

ফেসবুক কিংবা হোয়াটসঅ্যাপে চ্যাটের মাঝে ইমো ব্যবহার বেশ জনপ্রিয়। খুব সহজেই নিজের মনের অবস্থা প্রকাশ করতে পটু এই ইমো। কিন্তু ইমো দিয়ে যদি কোনো ওয়েবসাইটের ঠিকানা লেখা যায় তবে কেমন হয়? এই অদ্ভূত ব্যবস্থাই করে দিচ্ছে লিংকমোজি ( http: / /www. xn--vi8hiv. ws/ submit ) নামের এক ওয়েবসাইট। ম্যাশেবল জানিয়েছে চমকপ্রদ এই তথ্য।

ফেসবুকের প্রোডাক্ট ডিজাইনার জর্জ কেন্ডবার্গ এবং ক্যান হ্যাজ চিজবার্গার ওয়েবসাইটের প্রতিষ্ঠাতা এরিক নাকাগাওয়ার মাথাতেই আসে এই উদ্ভট আইডিয়া। আইডিয়া শুধু মাথাতেই বন্দি করে রাখেননি তাঁরা, বানিয়ে ফেলেছেন আস্ত ওয়েবসাইট।

এই ওয়েবসাইটের কর্মপদ্ধতিও খুব সরল। যাঁরা জনপ্রিয় ওয়েবলিংক কনভার্টার Bit. ly কিংবা goo. gl ব্যবহার করেছেন তাঁরা সহজেই বুঝতে পারবেন এই ওয়েবসাইট কীভাবে কাজ করে। মূলত লিংকমোজি যেকোনো ওয়েব লিংককে ইমোতে কনভার্ট করে ফেলে।

বুধবার চালু হওয়ার পর থেকে বেশ ভালোই জনপ্রিয়তা পেয়েছে লিংকমোজি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর বদৌলতেই এই জনপ্রিয়তা।

নাগাওয়ার মাত্র এক ঘণ্টার পরিশ্রমের ফসল এই ওয়েবসাইট। আর ওয়েবসাইটি নির্মাণে তিনি সাহায্য নিয়েছেন অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট প্ল্যাটফর্ম ‘পার্স’-এর। এই পার্সের মালিক অবশ্য ফেসবুক।

বর্তমানে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ইউআরএল কনভার্ট করছে ইমো। তবে নির্মাতাদ্বয় চাচ্ছেন ম্যানুয়াল অপশন রাখার জন্য। নিজের পছন্দের ইমো দিয়ে সাজিয়ে নিতে পারবেন কাঙ্ক্ষিত ওয়েবলিংক।

ফেসবুক, টুইটারের মতো ওয়েবসাইটে লিংকমোজির তৈরি ইউআরএল বেশ ভালো মতোই কাজ করলেও বেশির ভাগ ওয়েবসাইটে এখনো কার্যকর নয় ইমোর পূর্ণ ইউআরএল। তবে জনপ্রিয়তা যেভাবে বাড়ছে তা থেকে অনুমান করা যায় নির্মাতাদ্বয় লিংকমোজি নিয়ে অনেক বড় পরিকল্পনার দিকেই এগিয়ে যাচ্ছেন।