মেইন ম্যেনু

ইরানকে জবাব দিতে সৌদিতে ২০ দেশের সামরিক মহড়া

সৌদি আরবে তার মিত্র ২০ টি দেশের সামরিক বাহিনী এক যৌথভাবে মহড়ায় একত্রিত হতে যাচ্ছে। এই অঞ্চলে এবারই প্রথম এত বেশি সংখ্যক দেশের একত্রে সামরিক মহড়া। এই মহড়ার নাম দেয়া হয়েছে ‘উত্তরের ঝড়’। এতে ২০ টি দেশের স্থল, নৌ ও বিমান বাহিনী মিলিতভাবে অংশগ্রহণ করবে।

প্রতিবেশি প্রভাবশালী শিয়ারাষ্ট্র ইরানের অব্যাহত হুমকির জবাবে দিতেই অপর প্রভাবশালী সুন্নীদেশ সৌদি আরব এই মহড়ার আয়োজন করেছে বলে ধারণা করা হয়।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম জানিয়েছে, এই অঞ্চলের শান্তি ও স্থিতিশীলতা রক্ষায় যে কোনো রকম আক্রমণ প্রতিহত করার জন্য সৌদি ও তার মিত্ররা ঐক্যবদ্ধভাবে প্রস্তুত রয়েছে, প্রতিপক্ষকে এই বার্তা দেয়ার জন্যই মহড়ার আয়োজন করা হয়েছে।

বর্তমানে সৌদি আরব তার দক্ষিণের প্রতিবেশি ইয়েমেনে ইরানের সমর্থনপুষ্ট বিদ্রোহীদের সাথে যুদ্ধে নেতৃত্ব দিচ্ছে। এছাড়া, গত বছরের ডিসেম্বরে ‘সন্ত্রাসবাদ’ বিরোধী যুদ্ধের জন্য ৩৫ টি মুসলিম দেশ নিয়ে একটি জোট গঠন করে সৌদি।

রবিবারের ঘোষণায় মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের অন্যতম সদস্য সৌদি আরো জানিয়েছে, সিরিয়ায় আইএস বিরোধী যুদ্ধে আরো কার্যকর ভূমিকা পালনের উদ্দেশ্যে তুরস্কের বিমানঘাঁটিতে যুদ্ধবিমান মোতায়েন করেছে তারা।

তবে, ২০ দেশের অংশগ্রহণে এই মহড়া কবে নাগাদ শুরু হবে বা কতদিন স্থায়ী হবে সে ব্যাপারে এসপিএ কিছু জানাতে পারেনি।

২০ টি দেশের মধ্যে সৌদির ৫ উপসাগরীয় প্রতিবেশি ছাড়াও চাদ, মিশর, জর্ডান, মালয়েশিয়া, মরক্কো, পাকিস্তান, সেনেগাল ও তিউনিশিয়া অন্তর্ভুক্ত রয়েছে বলে জানা যায়।