মেইন ম্যেনু

ইসরায়েলের হাতে চাঁদের প্রথম টিকিট

এই প্রথম বারের মত চন্দ্রাভিযানে যাচ্ছে ইসরায়েল। ২০১৭ সালে চাঁদের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করবে তাদের একটি মহাকাশযান। এজন্য গুগল লুনার এক্সপ্রাইজ এর সঙ্গে একটি আনুষ্ঠানিক চুক্তি স্বাক্ষর করেছে ইসরায়েলি একটি দল। জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল পপুলার সায়েন্স গতকাল বুধবার এ সংক্রান্ত বিস্তারিত খবর প্রকাশ করেছে। ইসরাইলের জেরুজালেমে অনুষ্ঠিত এক প্রেস কনফারেন্সে এই চুক্তির ঘোষণা করা হয়।

মূলত এটি একটি প্রতিযোগিতা। মহাকাশ অভিযানের নতুন যুগের সূচনা করার জন্যই এই প্রতিযোগিতার সূচনা করা হচ্ছে।

স্পেস-এক্স-ফ্যালকন-৯ রকেট, স্পেস আই.এল-এর মনুষ্যবিহীন মহাকাশযানকে নিয়ে যাবে চাঁদে। এরপর এই মহাকাশযান ঘুরে বেড়াবে চন্দ্র পৃষ্ঠে।

এই প্রতিযোগিতায় কোন প্রতিযোগীকে জিততে হলে চাঁদের বুকে শুধু পদার্পণ করলেই চলবে না। চাদের বুকে চষে বেড়াতে হবে অন্তত ৫০০ মিটার এলাকা। পৃথিবীতে ফেরত পাঠাতে হবে চাদের হাই-ডিফিনিশন ইমেজ ও ভিডিও।

বেসরকারিভাবে অর্থায়নে চাঁদের বুকে অভিযানের জন্য ১৬ টি দল এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে।

কঠিন এক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখী হবেন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী দলগুলো। কারণ এ যাবৎকাল মাত্র তিনটি দেশ-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও রাশিয়া চাঁদের বুকে অবতরণ করতে পেরেছে সফলভাবে ।

চন্দ্র অভিযান প্রতিযোগিতায় সফলভাবে সম্পন্ন করা প্রথম স্থান অর্জনকারী পুরস্কার হিসেবে পাবেন ২০ মিলিয়ন ডলার। দ্বিতীয় স্থান অর্জনকারী পাবেন ৫ মিলিয়ন ডলার। আর যে প্রতিযোগী চন্দ্র পৃষ্ঠের ৫০০ মিটার এলাকাকে ছাপিয়ে অতিরিক্ত দূরত্ব অতিক্রম করবে তাকে পুরস্কার হিসেবে দেয়া হবে ৫ মিলিয়ন ডলার।