মেইন ম্যেনু

ইসলামী ব্যাংকে লুট হওয়া ৩ লাখ টাকা ফেরত পাচ্ছেন না গ্রাহক

ইসলামী ব্যাংক থেকে ৬ মাস আগে এক সাধারণ গ্রাহকের তিন লাখ টাকা লুটের ঘটনা ঘটলেও এখনও কোনো সমাধান পাননি ওই ভুক্তভোগী। রাজধানীর বাড্ডায় ইসলামী ব্যাংকের একটি শাখায় এ ঘটনা ঘটে। এখন পর্যন্ত ওই গ্রাহককে কোনো ক্ষতিপূরণও দেননি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্রে জানা গেছে, ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকের নাম শফিকুল আলম। তিনি ব্যক্তিগতভাবে ব্যবসায়ী। থাকেন বাড্ডার ডিআইটি প্রজেক্টে।

জানতে চাইলে শফিকুল আলম বলেন, গত রমজান মাসে এই ঘটনা ঘটে। তারপর থেকে ইসলামী ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট শাখা, প্রধান কার্যালয় ও বাংলাদেশ ব্যাংকের বিভিন্ন পর্যায়ে যোগাযোগ করেছি। তবে কেউই সুরাহা দিচ্ছে না। তাহলে আমি কি আমার কষ্টার্জিত তিন লাখ টাকা ফেরত পাবো না?

বিষয়টি সম্পর্কে জানতে ইসলামী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আব্দুল মান্নানকে কয়েক দফা ফোন করলেও পাওয়া যায়নি। পরে তার দফতরে ফোন করলে জানানো হয়, ‘তিনি দুবাই গেছেন ব্যাংকের ব্যবসায়িক কাজে।’

জানা গেছে, শফিকুল আলমের টাকা জালিয়াতি অর্থ চেকের মাধ্যমে সোনালী ব্যাংকের সিলেটের একটি শাখা থেকে তুলে নেয়া হয়েছে। তবে কে বা কারা তুলে নিয়ে গেছেন জানতে পারছেন না এই গ্রাহক।

কোনো সুরাহা ও পথ খুঁজে না পেয়ে এই গ্রাহক যোগাযোগ করেছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গ্রাহক স্বার্থ সংরক্ষণ কেন্দ্রে। সোমবার ওই গ্রাহক একটি অভিযোগ জমা দেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের কাছে। গভর্নর সচিবালয়ের একজন কর্মকর্তা বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখতে সংশ্লিষ্ট বিভাগকে নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

এদিকে, ইসলামী ব্যাংকের সূত্র বলছে- তারা সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বরাবর বিষয়টি নিয়ে একটি চিঠিও দিয়েছে। কিন্তু সোনালী ব্যাংক তাদের জানিয়েছে, ‘তারা যৌক্তিকভাবেই চেকের অর্থ সংগ্রহ করেছে।’