মেইন ম্যেনু

ঈদেও যাদের ফুসরত নেই

ঈদের সময় সরকারি-বেসরকারি বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠানই বন্ধ থাকে। তবে কিছু প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বের ধরন এমন যে সেগুলোতে সারা বছর এক মুহূর্তের জন্যও কাজ বন্ধ থাকে না।

ঈদ উপলক্ষ্যে এ সব প্রতিষ্ঠানের কাজের পরিধি হয়তো কিছুটা কমে আসে। তবে কিছু মানুষকে ঈদের ছুটি উপেক্ষা করে কাজ করতে হয়।

Eid02Duty-news

শহরের পরিচ্ছন্নতাকর্মী, পুলিশ, কারাগারে দায়িত্বপ্রাপ্তরা, চব্বিশ ঘণ্টার সংবাদ মাধ্যম, হাসপাতাল, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে নিয়োজিত বেসরকারি নিরাপত্তাকর্মীসহ বেশকিছু ক্ষেত্রের কর্মীজীবিদের ঈদের দিনেও কাজ করতে হয়।

জীবনে প্রথমবারের মতো ঈদের সময়ও ডিউটি করছেন ডাচ বাংলা ব্যাংকের এটিএম বুথের নিরাপত্তাকর্মী কায়েস জামান। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় কর্তব্যরত জামানের অভিমত, জীবনে কোনোদিন বাড়ি ছাড়া ঈদ করি নাই। এইবার থাকলাম। যাওয়া-আসার ঝামেলা বেশি। তাই ডিউটি করে বাড়তি টাকাও পাওয়া যাবে। আবার ঈদের পরে ছুটিও নিতে পারব। এই জন্য থাকলাম।

রাজধানীর ল্যাব এইড হাসপাতালের ওয়ার্ড বয় শামসুল ইসলামকে ঈদের মধ্যে দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। এ নিয়ে তার আক্ষেপের শেষ নেই। ‘আমার খুব ইচ্ছা ছিল বাড়িতে গিয়ে ঈদ করব। কিন্তু আইসিইউ বিভাগের অন্য এক সহকর্মী অসুস্থ হয়ে পড়ায় আমাকে ঈদের ডিউটি করতে হচ্ছে। করার কিছুই নেই। এজন্য মন খারাপ আছে ভাই’। মন্তব্য শামসুলের।

Eid03Duty-news

‘জীবনে পুলিশের চাকরিতে ঢুকে প্রথমেই শপথ করেছি আর কোনো আপনজনকে এই চাকরিতে ঢুকতে উৎসাহ দেব না। শুধু ঈদ বলে কথা না, এর বাইরেও ছুটি-ছাটা তো পাওয়াই যায় না, এর উপর উপরওয়ালাদের ঝাড়ি তো আছেই।’ ঈদে বাড়িতে যেতে না পেরে ক্ষুব্ধ নীলক্ষেতের ট্রাফিক পুলিশ সোবহান তালুকদার।

সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্নতাকর্মী সবুজ মিয়া বলেন, রোজার ঈদে ভালই লাগে, ছুটি পাওয়া যায়। কিন্তু কোরবানির ঈদের সময় খুব ঝামেলা যায়। এইবার তো কোরবানীর ময়লা পরিষ্কারের জন্য অনেক প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। আমাদেরও পরিশ্রম বাড়ছে।

যারা চব্বিশ ঘণ্টার অনলাইন নিউজ পোর্টাল এবং টেলিভিশনে কাজ করেন তাদের মধ্যে অনেককে ঈদের সময় দায়িত্ব পালন করতে হয়। এই দুই মাধ্যমের সাংবাদিকসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় কলাকুশলীদেরও থাকতে হয় দায়িত্বের মধ্যে।