মেইন ম্যেনু

ঈদের কেনাকাটা করতে বের হয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন শিরিন

ঈদে পরিবারের সবার জন্য পছন্দের পোশাক কিনতে পটিয়া থেকে চট্টগ্রাম শহরে এসেছিলেন শিরিন আক্তার (২৪)। এক আত্মীয়কে নিয়ে কেনাকাটা করতে বাসা থেকে বেরও হয়েছিলেন। বিধি বাম।

বিপণিকেন্দ্রে যাওয়া হলো না তার, ঠাঁই হলো হাসপাতালে। ছিনতাইকারীরা তার ব্যাগ ধরে টান দিলে তিনি রিকশা থেকে রাস্তায় ছিটকে পড়ে মাথায় গুরুতর আঘাত পান। সাত দিন হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে আজ মঙ্গলবার দুপুরে লাশ হয়ে গ্রামের বাড়ি ফিরে গেলেন তিনি।

নিহত শিরিনের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, শিরিন ১৩ জুন রাত সাড়ে আটটার দিকে চট্টগ্রাম নগরের ব্যাটারি গলির বাসা থেকে বের হয়ে আত্মীয়সহ টেরিবাজারের দিকে যাচ্ছিলেন। রাত নয়টার দিকে তাদের রিকশাটি জামাল খান মোড়ে পৌঁছালে মোটরসাইকেলে করে আসা তিন ছিনতাইকারী শিরিনের ভ্যানিটি ব্যাগ ধরে টান দেয়; এতে রিকশা থেকে ছিটকে পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পান তিনি।

গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে সেখান থেকে গভীর রাতে নগরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে আবার দুই দিন আগে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে গতকাল সোমবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

নিহত তরুণীর চাচাতো ভাই সৈয়দুল বলেন, ‘ঘটনার তিন দিন পর চকবাজার থানায় তিনি বাদী হয়ে মামলা করলেও পুলিশ কাউকে আটক বা গ্রেপ্তার করতে পারেনি।’

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের উপকমিশনার (দক্ষিণ) এস এম মোস্তাইন হোসেন বলেন, এ ঘটনায় জড়িত ছিনতাইকারীদের ধরতে পুলিশ সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।






মন্তব্য চালু নেই