মেইন ম্যেনু

উখিয়ার ইনানী বীচে বিদ্যুৎ বিহীন দুই মাস: পর্যটকরা আসছেনা

সাম্প্রতিক সময়ের প্রবল বর্ষণ ও প্রচন্ড ঝড়ো হাওয়ায় উপড়ে পড়া বৈদ্যুতিক খুঁটি আর সংস্কার করা হয়নি। যে কারণে বীচ এলাকায় বিদ্যুৎ পাচ্ছে না দুই মাস ধরে। পর্যটন এলাকায় বিদ্যুৎ না থাকার কারণে আইন শৃংখলার অবনতির আশংখা করে স্থানীয় বিদ্যুৎ গ্রাহকরা বিষয়টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিকে বেশ কয়েকবার অবিহিত করার পরও বিদ্যুৎ ব্যবস্থার উন্নতি হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে।

সম্প্রতি ইনানী বীচ ঘুরে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, সাম্প্রতিক সময়ের ঝড়ো হাওয়ার কবলে পড়ে একটি বৈদ্যুতিক খুঁটি উপড়ে গিয়ে বীচ এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

বীচের একজন ব্যবসায়ী আকুল কাশেম জানান, বীচ এলাকায় বিদ্যুৎ না থাকার কারণে ছিচকেচোর, টোকাই, পকেটমার, দুর্বৃত্তদের দৌরাত্মা বেড়ে গেছে।

এতে পর্যটকদের নিরাপত্তা বিঘিœত হচ্ছে। স্থানীয় বীচ কর্মী আবুল মনজুর এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বিদ্যুৎ না থাকার কারণে এখানে আগত পর্যটকেরা সন্ধ্যার আগেই তড়িগড়ি করে ইনানী ত্যাগ করতে বাধ্য হচ্ছে। হোটেল, মোটেল, গেষ্ট হাউস ব্যবসায়ীরা জানান, বিদ্যুৎ না থাকার কারণে তাদের হোটেল ব্যবসার অপূরণীয় ক্ষতি হচ্ছে।

ইনানী বীচের ইজারাদার নুরুল আমিন সিকদার ভুট্টো জানান, গত দুই মাস আগে বীচের মূল পয়েন্টে অবস্থিত একটি বৈদ্যুতিক খুঁটি পড়ে গিয়ে বীচের সমস্ত সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। বিষয়টি স্থানীয় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি কর্তৃপক্ষকে জানানো হলেও কোন কাজ হয়নি।

ইনানী বীচ বহুমুখী ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সভাপতি ছৈয়দ হোছাইন অভিযোগ করে জানান, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এক শ্রেণীর অসাধু কর্মচারী তাদের পাওনা না পাওয়ার কারণে বৈদ্যুতিক খুঁটিতে পূনঃস্থাপন করছে না। এতে বীচ এলাকার সমস্ত ব্যবসায়ী, পর্যটক তথা গ্রাহকদের নিত্য দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে।

তিনি অবিলম্বে বৈদ্যুতিক খুঁটিটি পুনঃস্থাপন পূর্বক বিদ্যুৎ সংযোগ সচল করার দাবী জানান। জানতে চাওয়া হলে উখিয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডিজিএম নুর হোসেন জানান, ওই বিদ্যুৎ খুঁটিটি স্থাপন করার কাজ চলছে।