মেইন ম্যেনু

উজ্জ্বল ত্বক পেতে ঘরেই তৈরি করুর ফেস মাস্ক

ত্বকের যত্ন নেবার হিড়িক পড়ে নারীদের মাঝে। যাদের সেই সময়টুকুও হয় না, তারা ঈদের রাত্রে সেরে নিতে পারেন রুপচর্চা। খুব কম সময়ে চট করে ত্বকের সৌন্দর্য ফুটিয়ে তোলার জন্য পিল-অফ ফেসপ্যাকের তুলনা হয় না। দেখে নিন একেবারে ঘরোয়া উপাদানে তৈরি করা যাবে এমন একটি পিল অফ ফেস প্যাক।

দামী দামী পণ্য ব্যবহার করার চাইতে ঘরোয়া উপাদানে ফেস মাস্ক তৈরি করা অনেক নিরাপদ এবং সাশ্রয়ী। এই পিল অফ ফেস প্যাকে ব্যবহার করা হয় একটি সিক্রেট উপাদান যার কারণে এই মাস্ক ত্বক থেকে সহজেই উঠিয়ে ফেলা যায়। এই উপাদান হলো জেলাটিন।

উপকরণ:

জেলাটিন দুই টেবিল চামচ (জেলি বানানোর পাউডার হিসাবে যেকোন ডিপার্টমেন্টাল দোকানেই পাবেন)
গ্রিন টি আধা কাপ
অর্ধেকটা লেবুর রস
দুইটি ডিমের সাদা অংশ

প্রণালী

১। প্রথমে লেবু থেকে রস বের করে নিন। এর জন্য টাটকা লেবুর রস ভালো। কারণ এতে থাকে ভিটামিন সি যা ত্বককে উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে। এছাড়াও লেবুর রস এক্সফলিয়েটর হিসেবে খুবই ভালো।

২। গ্রিন টি তৈরি করে নিন এবং আধা কাপ আলাদা করে রাখুন। গ্রিন টি ত্বককে আরাম দেয়। এর মাঝে মিশিয়ে নিন দুই টেবিল চামচ জেলাটিন। এরপর পুরো মিশ্রণটি চুলায় দিন যতক্ষণ না জেলাটিন পুরোপুরি গলে যায়। মাইক্রোওয়েভ ওভেনেও দিতে পারেন দশ সেকেন্ডের জন্য। এরপর মিশ্রণটিকে ভালো করে নেড়েচেড়ে মিশিয়ে নিন ও ঠাণ্ডা হতে দিন। দ্রুত ঠাণ্ডা করার জন্য ফ্রিজে রেখে দিতে পারেন দশ মিনিটের জন্য। তবে কোনোভাবেই যেন শক্ত না হয়।

৩। এরপর দুইটি ডিমের সাদা অংশ মিশিয়ে দিন এর মাঝে। তবে অবশ্যই গরম মিশ্রণে ডিম মেশাবেন না। ডিমের সাদা অংশ ব্ল্যাকহেডস দূর করে। এর পাশাপাশি ত্বকে দ্রুত একটি টানটান ভাব নিয়ে আসতেও সাহায্য করে। তৈরি হয়ে গেলো ফেস প্যাক।

৪। এরপর হাত দিয়ে অথবা একটি মেকআপ ব্রাশের সাহায্যে এই প্যাক মুখে লাগিয়ে নিন। অবশ্যই বেশ পুরু একটি স্তর তৈরি করতে হবে মুখের ওপরে, নয়তো ঠিকমতো মুখ থেকে উঠতে চাইবে না।

৫। তিন মিনিট পর এর ওপর দিয়ে আরেকবার এই মাস্ক লাগিয়ে নিন।

৬। ২০-৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এই সময়ে আপনি নিজেই লক্ষ্য করবেন মুখের ত্বকে টান লাগছে, তার মানে এটা তোলার সময় হয়ে গেছে। টেনে তুলে ফেলুন ফেস প্যাক। কিছু যদি মুখে থেকে যায় তবে উষ্ণ পানিতে নরম সুতি কাপড় ভিজিয়ে মুছে নিন।

৭। কখনোই সারা রাত এই মাস্ক মুখে রাখবেন না, ত্বক নষ্ট হয়ে যাবে।

৮। এই প্যাকে আরও যোগ করতে পারেন একটি ভিটামিন ই ক্যাপসুল এবং এক চা চামচ মধু। ভিটামিন ই ক্যাপসুল ব্রণের উপদ্রব কমাতে পারে এবং ত্বকের দাগ কমায়। মধু প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার হিসেবে কাজ করে এবং ত্বকের রোমকূপ ছোট করতে সাহায্য করে।