মেইন ম্যেনু

উত্যক্ত করায় এসআইয়ের বিরুদ্ধে ‘সঙ্গীতশিল্পী’র মামলা

সিআইডি পুলিশের এক পরিদর্শকের বিরুদ্ধে হয়রানির অভিযোগ এনে সিএমএম আদালতে মামলা করেছেন নিজেকে সঙ্গীতশিল্পী পরিচয় দেয়া সাবিহা রহমান মীনা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনে (ক্রাব) আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি ওই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে হয়রানির এ অভিযোগ তুলে ধরেন।

সাবিহা রহমান বলেন, “২০০১ সালে মোহাম্মদপুর থানায় আমার গাড়িচালকের বিরুদ্ধে জিডি করার সুবাদে উপ-পরিদর্শক ফখরুল ইসলামের সঙ্গে আমার পরিচয় হয়। তিনি ওই জিডির তদন্তকারী কর্মকর্তা ছিলেন। বর্তমানে পদোন্নতি পেয়ে তিনি সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক পদে কর্মরত। ওই সময় থেকে তিনি বিভিন্নভাবে আমাকে প্রেম-ভালোবাসার প্রস্তাব দিতে থাকেন। কিন্তু তার প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় তিনি আমাকে মোবাইল ফোনে বিভিন্ন নম্বর থেকে হয়রানি শুরু করেন।”

মীনা বলেন, “শিল্পী হওয়ার কারণে আমাকে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে যেতে হয়। কিন্তু ফখরুল ইসলাম নানাভাবে আমাকে হুমকি দিয়ে আসছেন।”

পুলিশ কর্মকর্তা ফখরুল ইসলাম তাকে গত চার-পাঁচ বছর ধরে মানসিকভাবে নির্যাতন করে আসছেন অভিযোগ করে মীনা বলেন, “তিনি আমার সঙ্গীতজীবনকে হুমকির মধ্যে রেখে এক রকম বাসায় বন্দি করে রেখেছেন। আমি বাসা থেকে বের হলে আমার পেছনে তার লোক পাহারা রাখে। নিরুপায় হয়ে জীবনের নিরাপত্তার চেয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করি। এরপর থেকে ফখরুল ইসলাম নির্যাতনের মাত্রা আরও বাড়িয়ে দেন। পরে আমি বাধ্য হয়ে গত ১১ জানুয়ারি ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) আদালতে তার বিরুদ্ধে মামলা করি। আদালত ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশকে মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব দিয়েছেন।”

প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশের প্রধানের কাছে মামলার সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচারসহ নিজের জীবনের নিরাপত্তা চেয়েছেন সাবিহা রহমান মীনা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক ফখরুল ইসলাম বলেন, “আমি মিটিংয়ে আছি। আপনি পরে ফোন করেন।”