মেইন ম্যেনু

উদ্ভট কিন্তু কার্যকরী ৯ টি স্বাস্থ্য টিপস

সুস্বাস্থ্যের জন্য নানা উপকারী টিপস মেনে চলি আমরা। কী করলে ওজন কমবে, কী করলে রাতে ঘুম ভাল হবে, কী খেলে বেশী শক্তি পাওয়া যাবে, কতটা পানি পান করা উচিৎ এমন অনেক প্রশ্নের উত্তর আমরা রোজ নতুন করে জেনে নিতে পছন্দ করি যেন। নিজেদের ডায়েট চার্ট আরও একটু সহজ করতে রোজই চোখ রাখি স্বাস্থ্য পাতায়।

কিন্তু আবার এমন অনেক উপকারী স্বাস্থ্য টিপস আছে যা আমাদের পছন্দ হয় না। উদ্ভট লাগে বলে মেনে চলতে চাই না। কিন্তু যত উদ্ভটই লাগুক এগুলো কিন্তু কাজের। আসুন জেনে নিই এমন ৯ টি স্বাস্থ্য টিপস-

১। ক্লান্ত অবস্থায় ব্যায়াম করুন
সারাদিনের পরিশ্রমের পর বাসায় ফিরে আবার শরীরচর্চা? আপনি ভাবছেন, আরও ক্লান্ত হয়ে যাবেন! না। ফলাফল হবে বরং উল্টো। শরীরচর্চা বরং আপনাকে তরতাজা করে তুলবে, মনকে প্রফুল্ল করে তুলবে, সারাদিনের হারানো শক্তি ফিরিয়ে আনবে। এমনকি দূর করে দেবে মন খারাপ করা ভাবনাগুলোও! বিশ্বাস না হলে আজ থেকেই পরীক্ষা করে দেখুন।

২। মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়াতে হাতে লিখুন
আমরা এখন লেখালেখির সব কাজ কম্পিউটারে করে অভ্যস্ত। কিন্তু গবেষণায় দেখা গেছে, কোন কিছু মনে রাখতে চাইলে হাতে লিখে লিখে মনে রাখার চেষ্টা করা সবচেয়ে কার্যকরি। এতে আপনার মস্তিষ্ক বেশী সজাগ থাকে। ছোটবেলায় আমরা কিন্তু এভাবেই পড়াগুলো মুখস্থ করতাম, মনে করে দেখুন! এখনো যখন কিছু শিখবেন, মনে রাখতে চাইবেন, সবসময় কম্পিউটারে টাইপ না করে কাগজে কলমে লিখে দেখুন, বেশী মনে থাকবে।

৩। সম্পর্ককে ভাল রাখতে একসাথে কম সময় কাটান
সবসময় একসাথে সময় কাটানো, সব জায়গায় একসাথে যাওয়া, একসাথে বেড়ানোতেই যে আপনার সম্পর্কের ঘনিষ্টতা বাড়বে তা কিন্তু নয়। বরং এতে আরও ব্যক্তি আপনার হারিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। যা পরে আপনার মধ্যে হতাশা, অস্তিত্বের সংকট ইত্যাদি তৈরি করতে পারে। আবার সঙ্গীকে বুঝতেও সমস্যা হতে পারে এভাবে। তারচেয়ে বরং কিছু সময় একা থাকুন, নিজেকে সময় দিন।

৪। ওজন কমাতে ডায়েট কার্বোনেটেড বেভারেজ খাবেন না
ওজন কামাতে ডায়েট কোকাকোলা, পেপসি বেছে নিই আমরা অনেক। কিন্তু গবেষণায় দেখা গেছে, যারা ডায়েট সোডা পান করেন তারা বরং আরও বেশী মাত্রায় ক্যালরি গ্রহণ করেন। ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাসের গবেষণায় দেখা গেছে, যারা ডায়েট সোডা পান করেন কোমর ১০ বছরে ৭০ শতাংশ বেশী স্থূল হয়, যারা ডায়েট সোডা পান করেন না তাদের তুলনায়।

৫। গরমের দিনে গরম খান, ঠান্ডা নয়
গ্রীষ্মের এক তপ্ত সকালে কী বেছে নেবেন আপনি, গ্রম না বরফ শীতল ঠান্ডা এক মগ কফি? নিশ্চয়ই ঠান্ডা কফি! এই তো ভুল করলেন! এতে বরং ঠান্ডা লেগে যাবে আপনার। গবেষণায় দেখা গেছে, গরমের সময় গরম খাবার বরং আপনাকে ঠান্ডা রাখে। কারণ, শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে ঘাম হয়, আর ঘাম হওয়াও কিন্তু জরুরী!

৬। ক্লান্তিতে এনার্জি ড্রিংক্স নয়
এনার্জি ড্রিংক্স কফির তুলনায় ৬ গুণ বেশী ক্যাফেইন সমৃদ্ধ পানীয়। কিন্তু এই পানীয় স্বল্প সময়ে এনার্জি তৈরি করে, যা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এতে নার্ভাসনেসের ক্ষতি হয়, পালস বেড়ে যায়। তাৎক্ষণিক শক্তি পাওয়া গেলেও পড়ে দূর্বল অনুভূতি হয় এবং দ্রুতই ঘুম পায়, গা ছেড়ে দেয়।

৭। ছোট কাপড়ে ফিট হতে ওজন বাড়ান
এটা নির্ভর করে মাংসপেশির ধরনের উপরে। অনেক সময় আপনি যখন নিয়মিত ব্যায়াম করেন, ওজন কমে না বরং বাড়ে। আবার পুরাতন পছন্দের প্যান্টটা অনায়াসেই পরা যায়। কেন হয় এটা? কারণ শরীরচর্চা আপনার বাড়তি মেদ কমায়। মেদহীন পেশী কম জায়গা নেয়, ফলে ওজন বাড়লেও পুরাতন কাপড় পরা যায়।

৮। কম খেতে হলে বেশী খান
অনেক সময় আমরা কম কার্বোহাইড্রেট খেতে গিয়ে এতই কম খাই যে ক্ষুধা লাগে কিছুক্ষণ পর। এখন কী খাবেন তাহলে? বিশেষজ্ঞরা বলেন, এক্ষেত্রে প্রোটিন জাতীয় খাবার যেমন বাদাম, পনির এসব খেতে পারেন। আপনি ভাবছেন এগুলোতে তো অনেক ফ্যাট। হ্যাঁ, তবে এসব খাবার দীর্ঘসময় আপনাকে ক্ষুধার অনুভূতি থেকে বিরত রাখে। ফলে দ্রুত ক্ষুধার অনুভূতি কাটবে আবার দীর্ঘসময় না খেয়েও কাটাতে পারবেন।

৯। খাওয়ার পরপরই দাঁত ব্রাশ করবেন না
সুস্থ্য দাঁত পেতে দাঁত ব্রাশ অবশ্যই করবেন। কিন্তু খাওয়ার একদম পরেই না। এতে আপনার টুথপেষ্টের রাসায়নিক এর সাথে খাদ্য উপাদানের বিক্রিয়ায় দাঁতের বরং ক্ষতি হতে পারে। তাই কিছু সময় অপেক্ষা করুন।



(পরের সংবাদ) »