মেইন ম্যেনু

ঋতুস্রাবের ব্যথা থেকে মুক্তি মিলবে সজনে পাতায়!

নামী কোম্পানির দামী ওষুধও হয়তো কোনো কোনো রোগের বিরুদ্ধে ব্যর্থ হয়। অনেক টাকা-পয়সা নষ্ট করেও কোনো ফল মেলেনা। কিন্তু আমাদের আশেপাশে এরকম অনেক জিনিস আছে যার গুণে মিলতে পারে রোগমুক্তি। হতে পারে বিশেষ ব্যথার উপশম।

অথচ আশেপাশের এই জিনিসগুলো সম্পর্কে আমাদের তেমন একটা ধারণা নাই। সজনে পাতা তেমনই একটা জিনিস। আমাদের ঘরের পাশেই একটা নিচু ডালে হয়তো ঝুলছে সবুজ, চিরল পাতা। আমরা সে দিকে খেয়ালই করছি না।

কিন্তু প্রিভেন্ট ডিজিস ডটকম নামের স্বাস্থ্য বিষয়ক একটি সাময়িকীতে সম্প্রতি প্রকাশিত একটি গবেষণা নিবন্ধে দাবি করা হয়েছে, সামান্য এই সজনে পাতায় আছে রোগ সারানোর অসামান্য ক্ষমতা।

সজনে পাতায় আছে শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় অ্যামাইনো এসিড তৈরির সব উপাদান। প্রায় ৩০ শতাংশ আমিষ আছে এই পাতায়। আছে প্রচুর পরিমাণে এন্টিঅক্সিডেন্ট। এছাড়া এই পাতা ইনসুলিন জাতীয় পদার্থ আছে যা রক্তে গ্লুকোজ বা সুগারের পরিমাণ নিয়ন্ত্রন করে।

বলা হয়ে থাকে সজনে পাতার প্রায় ৩০০ রোগ সারানোর ক্ষমতা আছে। তবে আজ আমরা সজনে পাতার একটি বিশেষ গুণ নিয়ে আলোচনা করবো-

ঋতুস্রাবের কালে তলপেটে ব্যাথার শিকার হননি এমন নারী খুঁজে পাওয়া যাবে না। আবার এই সমস্যার কারণে ওষুধ খাননি এমন নারীও খুঁজে পাওয়া যাবে না।

তবে ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল অব প্যাথোথেরাপি বলছে ঋতুস্রাব চলাকালে তলপেটের ব্যথার জন্য আপানাকে আর ওষুধ খেতে হবে না।

প্যাথোথেরাপির পরামর্শ পিরিয়ডস (ঋতুস্রাব) চলাকালে তলপেটের ব্যথা কমাতে সামান্য কয়েকটি সজনে পাতাই যথেষ্ট।

প্যাথোথেরাপি বলছে, পিরিয়ডস-এর সময় ক্র্যাম্পস আর পেট ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। সাময়িকীর ওই নিবন্ধে দাবি করা হয়েছে সজনে পাতায় আছে বিভিন্ন ধরনের ভিটামিন আর মিনারেলস‚ যা ব্যথা কমায়।

গবেষকদের বক্তব্য হলো, সজনে গাছের পাতায় আছে এমন সব উপাদান যা পেটের আর ইউটেরাসের রক্ত চলাচল বাড়িয়ে দেয়। ফলে ক্র্যাম্প বা ব্যথা অনেকটাই কমে যায়। এছাড়া এই পাতা যদি মধুর সঙ্গে খাওয়া হয় তা হলে অ্যানিমিয়া বা রক্তসল্পতা কমে যায়।

আয়ুর্বেদ অনুযায়ী পিরিয়ডসের সময় অ্যানিমিয়ার কারণেই পেটে ক্রাম্প আর ব্যথা হয়। এই পাতায় রয়েছে আয়রন আর ক্যালসিয়াম; যা এইসময় দেহে প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

আয়ুর্বেদ চিকিৎসকদের পরামর্শ হচ্ছে, একমুঠো পাতা থেকে তার রস বের করে নিয়ে একটা কাপের মধ্যে পাতার রস আর এক টেবিল চামচ মধু নিন। ভালো করে মিশিয়ে নিন। পিরিয়ডসের প্রথম তিন দিন সকালে খালি পেটে এই মিশ্রণটা খেলে ব্যথা উপশম হবে।