মেইন ম্যেনু

এই গরমে তৈরি করে ফেলুন বরফ শীতল শার্লি টেম্পল (রেসিপি ও ভিডিও)

এই গরমে খাবারের চাইতে বিভিন্ন ধরণের পানীয়েরই কদর বেশি থাকে আমাদের কাছে। কচি ডাবের পানি থেকে শুরু করে বিভিন্ন নামীদামী ব্র্যান্ডের কোমল পানীয়- সবই এ সময়ে পান করা হয়ে থাকে। একটু অন্যরকম পানীয়ের স্বাদ পেতে চাইলে তৈরি করে নিতে পারেন টক-মিষ্টি স্বাদের শার্লি টেম্পল মকটেল। পাশ্চাত্যে এতে অ্যালকোহল দেওয়া হলেও এই রেসিপিতে আপনি তা ছাড়াই তৈরি করে নিতে পারেন এই ড্রিঙ্কটি। অতিথি আপ্যায়নের জন্য দারুণ সুন্দর এই পানীয়টি কাজে আসবে আপনার।

উপকরণ
– দেড় কাপ মিষ্টি কালো চেরি
– ১টা লেবু
– সিকি কাপ চিনি
– কয়েক ফোঁটা ভ্যানিলা এক্সট্রাক্ট
– ১ টেবিল চামচ মধু
– দেড় কাপ সোডা (ফ্লেভার ছাড়া)
– কিছু পরিমাণ আইস কিউব
– ছোট এক টুকরো আদা

প্রণালী

১) প্রথমে আপনাকে গ্রেনাডিন নামের একটি উপকরণ তৈরি করে নিতে হবে। এর জন্য চেরিগুলোর বোঁটা এবং বীজ ফেলে দিয়ে কুচি করে নিন।

২) কুচি করা চেরি, চিনি এবং পৌনে এক কাপ পানি দিন সসপ্যানে। আঁচে রাখুন যতক্ষণ না ফুটে আসে। তিন মিনিট বা উজ্জ্বল গোলাপি রং হওয়া পর্যন্ত ফুটিয়ে নিন।

৩) এরপর মধু এবং ভ্যানিলা এক্সট্রাক্ট দিয়ে মিশিয়ে নিন এবং চুলা নিভিয়ে ফেলুন। এই মিশ্রণটাকে ছেঁকে নিন। যে মিষ্টি মিশ্রণটা পাবেন সেটাই গ্রেনাডিন সিরাপ। এটাকে ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করে নিন। শার্লি টেম্পল তৈরির আগে ফ্রিজ থেকে বের করে নিন।

৪) শার্লি টেম্পল তৈরির জন্য আপনার একটা মুখ বন্ধ জার দরকার হবে। এর ভেতরে আদার টুকরোটা ছেঁচে নিন এবং লেবুর রস দিন। এরপর এতে আইস কিউব, জনপ্রতি এক কাপের তিন ভাগের এক ভাগ গ্রেনাডিন সিরাপ দিয়ে জারের মুখ বন্ধ করে দিন এবং ভালো করে শেক করে নিন।

৫) একটি গ্লাসে পৌনে এক কাপ সোডা এবং কিছু আইস কিউব দিন। এতে শেক করা পানীয়টি দিন।
এবার ওপরে কিছু চেরি দিয়ে পরিবেশন করুন ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা শার্লি টেম্পল।

টিপস

– দোকান থেকে গ্রেনাডিন সিরাপ কিনেও এই ড্রিঙ্কটি তৈরি করতে পারেন।

– ডালিমের রস দিয়েও এটা তৈরি করা যায়

– গ্রেনাডিন সিরাপ দুই সপ্তাহ ফ্রিজে রেখে ব্যবহার করা যায়

– এই ড্রিঙ্ক তৈরি করতে শেকার ব্যবহার করা গেলে ভালো হয়

ভালো করে বুঝতে দেখে নিন রেসিপির ভিডিওটি-