মেইন ম্যেনু

খালেদার সঙ্গে বৈঠকের গুঞ্জনে সৈয়দ আশরাফ

‘এই বিষয়ে আমি কোনো মন্তব্য করতে চাই না’

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠক গুঞ্জনের সত্যতা সম্পর্কে প্রশ্নের জবাবে কথা বলতে নারাজ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। বর্তমানে দুজনই লন্ডনে অবস্থান করছেন।

সোমবার তার সম্মানে লন্ডনের টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের মেয়র ও স্পিকারের আমন্ত্রণে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আশরাফ বলেন, ‘এই বিষয়ে আমি কোনো মন্তব্য করতে চাই না।’

এছাড়া আগামী বছরের শুরুতে মধ্যবর্তী নির্বাচন হতে পারে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবেও আওয়ামী লীগের মুখপাত্র বলেন, ‘আমাদের কাছে এ ধরনের কোনো ইনফরমেশন নেই।’

সৈয়দ আশরাফ বলেন, ‌‘গণতন্ত্রের প্রশ্নে ব্রিটেনের সঙ্গে বাংলাদেশের তুলনা চলে না। কারণ এ দেশে গণতন্ত্র সহজে আসে নাই।’

তবে গণতন্ত্র ছাড়া বিকল্প নেই জানিয়ে আশরাফ বলেন, ‘আমাদের দেশে গণতন্ত্র প্রেকটিক্স কতদিন আগে সৃস্টি হয়েছে, এটা দেখতে হবে। তবে গণতন্ত্র চর্চা করছি। যাতে বাংলাদেশে আরো গণতন্ত্র গভীর শিকড় গড়ে ওঠে।’

স্মৃতিচারণ করে সৈয়দ আশরাফ বলেন, ‘এই টাওয়ার হ্যামলেটসে আমি দীর্ঘদিন মূলধারার রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলাম। একসময় এই টাওয়ার হ্যামলেটসে বর্ণবাদীদের কারণে দিনের বেলাতেও হাঁটা যেতো না। সবকিছু টাইমিংয়ের ব্যাপার, সময়ের ব্যাপার।’

এর আগে টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের স্পিকার আব্দুল মুকিত চুন্নু এমবিইর সভাপতিত্বে ও কাউন্সিলের চিফ হুইপ খালিস উদ্দীন আহমেদের পরিচালনায় ক্যানারি ওয়ার্ফের মালবারি প্লেইসে আয়োজিত সংবর্ধনা সভায় বক্তব্য রাখেন- জিম ফিজ পেট্রিক এমপি, কাউন্সিলের মেয়র জন বিগস, সৈয়দ আশরাফের সহধর্মীনি মিসেস আশরাফ, স্থানীয় কনজারভেটিভ পার্টির প্রধান কাউন্সিলার পিটার গোল্ড, ডেপুটি মেয়র সিরাজুল ইসলাম, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ সভাপতি সুলতান শরীফ, সহ- সভাপতি জালাল উদ্দীন, বেতার বাংলার সিইও নাজিম চৌধুরী প্রমুখ।