মেইন ম্যেনু

‘এই সরকারের অধীনে আর নির্বাচন করা সম্ভব নয়’

নির্বাচনী পদ্ধতির কোন পরিবর্তন না হলে এই সরকারের অধীনে আর নির্বাচন করা সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান।

তিনি বলেন, গত ছয় মাসে নির্বাচনী সহিংসতায় ১১৩ জন পঙ্গু এবং ১০ হাজারে্রও বেশি নেতাকর্মী আহত হযেছে। ইতিমধ্যে নির্বাচনী সহিংসতায় যারা মারা গেছেন তার দায় কে নিবে? এই দায় সরকারকেই নিতে হবে। কারণ নির্বাচন কমিশন নামে স্বাধীন হলেও তারা সরকারের আন্ডারে কাজ করছে।

শনিবার দুপুরে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) সাথে বিএনপির তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দলের সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

সেলিমা রহমান বলেন, আমরা সিইসিকে বলেছি, এটাই আমাদের শেষ। আমরা মনে করছি যদি না নির্বাচনী পদ্ধতির কোন পরিবর্তন না হয়, তাহলে আপনাদের সরকারের আন্ডারে আর নির্বাচন করা সম্ভব না।

তিনি বলেন, এই ইউপি নির্বাচনে যে রকম ঘটনা আমরা দেখলাম, আমাদের লোক যেভাবে প্রাণ হানি হয়েছে, এখান থেকে আমাদের উপল্বদ্ধি হচ্ছে এই সরকারের অধীনে আর কোন নির্বাচন সম্ভব নয়। কারণ আইন শৃঙখলা বাহিনীর সদস্য, র্যাব কেউই স্বাধীন এবং নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে পারছে না।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচন কমিশন প্রতিবারই বলেছে আগামী বার নির্বাচন সুষ্ঠু হবে। কিন্তু আমরা দেখছি ভোট গ্রহণের আগের দিন দুই এক জন করে মারা যাচ্ছে। ভোট কেন্দ্রে ভোটারদের আসতে দেওয়া হচ্ছে না। আবার আসলেও তাদের ভোট দিতে দেওয়া হচ্ছে না।

এসব ঘটনা প্রতিবার ঘটছে, প্রতিবারই আমরা কমিশনকে জানিয়ে আসছি। কিন্তু এসব বিষয়ে কমিশন কোন সুরাহা করেনি বলে অভিয়োগ করেন বিএনপির এই নেতা।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ক্যাপ্টেন (অব.) সুজা উদ্দিন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আবদুল আওয়াল খান প্রমুখ।