মেইন ম্যেনু

এই ৭টি অভ্যাস ত্যাগ করুন আজই

এমন কিছু বদঅভ্যাস আছে যা আমাদের নিত্যদিনের কাজের অংশ হয়ে গেছে। এমনকি এই অভ্যাসগুলো যে আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর সেটি আমরা জানি না! বদঅভ্যাস বলতে মূলত ধূমপান বা মদ্যপানকে বুঝে থাকি, কিন্তু এই অভ্যাসগুলো ছাড়া আরও কিছু অভ্যাস আছে, যা আমরা প্রতিনিয়ত করছি।এই বদ অভ্যাসগুলো আমাদের স্বাস্থ্যের জন্যও বেশ ক্ষতিকর।

১। ক্ষুধা না লাগলেও স্ন্যাক্স খাওয়া

আপনার পেট ভরা থাকলেও কি আপনি স্ন্যাক্স খেয়ে থাকেন? আপনার দেহে খাবারের প্রয়োজন থাকলে আপনি ক্ষুধা টের পাবেন। বাড়তি খাবার আপনার ওজন বৃদ্ধি করার সাথে সাথে ডায়াবেটিস, হৃদরোগের মত মারাত্নক রোগ হওয়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি করে। ক্ষুধা লাগলে খাবার খান। কিন্তু খেতে ইচ্ছা করল আর খাবার খেয়ে ফেললেন- এমনটা করবেন না। পেট কিছুটা ভরে আসলে খাওয়া বন্ধ করে দিন।

২। দ্রুত খাওয়া

এই কাজটি অনেক মানুষ করে থাকেন। দ্রুত খাওয়া হজমের সমস্যা সৃষ্টি করে। শুধু তাই নয় দ্রুত খাওয়া আপনার ওজন বৃদ্ধি করে থাকে। ব্যস্ততার কারণে তাড়াহুড়া করে না খেয়ে একটু সময় নিয়ে ভাল করে চিবিয়ে খাবার খান। দ্রুত চিবানোর ফলে আসিডিটি, পেট ফাঁপা এবং ওজন বৃদ্ধির মত ঘটনা ঘটে থাকে।

৩। রাতজাগা

রাতজাগা আরেকটি বদঅভ্যাস। কিন্তু ঘুম স্বাস্থ্যের জন্য অনেক প্রয়োজন, বিশেষত রাতের ঘুম। রাতে অপর্যাপ্ত ঘুমের কারণে আপনি পরের দিন ক্লন্তিবোধ করবেন। ৬-৮ ঘন্টা ঘুমের অভাবে কারণে আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা হ্রাস করে এবং শরীরে কিছু জীবাণু উৎপাদন করে থাকে।

৪। সকালের নাস্তা না খাওয়া

অনেকেই ওজন কমানোর উদ্দেশ্য বা তাড়াহুড়ার কারণে সকালের নাস্তা খান না। এই একটি কাজ আপনার ওজন বৃদ্ধি করে থাকে। সকালের খাবার দেহে জ্বালানি হিসেবে কাজ করে। সকালের নাস্তা বাদ দেওয়ার কারণে আপানর মেটাবলিজম ধীর হয়ে যায় এবং এটি ওজন বৃদ্ধি করে থাকে। ওজন কমাতে চান? তবে লো ফ্যাটযুক্ত খাবার দিয়ে সকালের নাস্তাটি করে ফেলুন।

৫। দাঁত দিয়ে নখ কাটা

নার্ভাস বা অনেক বেশি চিন্তিত থাকলে দাঁত দিয়ে নখ অনেকেই কেটে থাকেন। নখের ভিতরে অনেক ময়লা থাকে, যা মুখের মাধ্যমে পেটে প্রবেশ করে থাকে। Dr. Sunsesara এর মতে “ আপনার হাত সারাক্ষণ কিছু না কিছু স্পর্শ করছে, এবং হাত জীবাণু দ্বারা আক্রান্ত হচ্ছে। নখ দাঁত দিয়ে কাটার কারণে রোগ জীবাণু পেটে প্রবেশ করে জ্বর, ফ্লু এর মত রোগের সৃষ্টি করে থাকে”।

৬। ভারী ব্যাগ বহন করা

আমরা আমাদের সব জিনিসপত্র ব্যাগে বহন করতে পছন্দ করি। কিন্তু প্রতিদিন ভারী ব্যাগ বহনের কারণে আপনি পিঠে ব্যথা দ্বারা আক্রান্ত হয়ে থাকেন।

৭। হেডফোন অনেকক্ষণ ব্যবহার করা

সময় কাটানোর জন্য, ভ্রমণে অথবা অবসরে আমরা গান শুনে থাকি। অনেকেই গান শুনতে হেডফোন ব্যবহার করেন। কয়েক ঘন্টা একনাগাড়ে হেডফোন ব্যবহার করলে আপনার শ্রবণক্ষমতা ঝুঁকির মধ্যে থাকে। Dr. Vihang বলেন “ জোরে হেডফোনে গান শোনার কারণে আপনি শ্রবনশক্তি হারাতে পারেন”।

কথিত আছে মানুষ অভ্যাসের দাস। কিন্তু ইচ্ছাশক্তি দিয়ে যেকোন অভ্যাস ত্যাগ করা সম্ভব।