মেইন ম্যেনু

একই বোতলে দীর্ঘদিন পানি পান?

বাইরে বের হলে সঙ্গে পানি বহন বা ফ্রিজে রাখার জন্য প্লাস্টিকের বোতলই ভরসা। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে একই বোতল দীর্ঘদিন ব্যবহার চলে। আলাদা করে পরিষ্কার করার প্রয়োজন পড়ে না। আমরা ভেবে থাকি, বোতলে পানিই তো ছিল, ময়লা হওয়ার সুযোগ কোথায়। কিন্তু আসলেই কি তাই?

ফুড গ্রেড প্লাস্টিকের বোতলের কথা ভিন্ন, কিন্তু সাধারণ যেসব বোতল পানি রাখার জন্য ব্যবহার করি সেগুলো মোটেই বেশিদিন ব্যবহারের উপযোগী নয়। এসব ডিসপোজেবল বোতল বারবার ব্যবহারের ফলে সহজেই ক্ষয় হয়ে যেতে থাকে। বোতলে প্লাস্টিকের দেয়ালে তৈরি হয় ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ফাটল। নিয়মিত পরিষ্কার না করলে এসব ফাটলে বাসা বাধে ব্যাকটেরিয়া। ব্যাকটেরিয়া থেকে বিসফেনল নামের এক ধরণের রাসায়নিক উপাদান আমাদের শরীরে ঢুকে যায় সহজে, যা খুবই স্বাস্থ্য ঝুঁকিপূর্ণ।

শুধু ডিসপোজেবল বোতলই নয় ফুড গ্রেড প্লাস্টিকের যেসব বোতল আমরা ব্যবহার করি সেগুলোকেও নিয়মিত পরিষ্কার না রাখলে ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে। বিশেষ করে স্কুলের বাচ্চারা যে বোতলে দিনের পর দিন না ধুয়ে ব্যবহার করতে থাকে, তার মাঝে অতিরিক্ত ব্যাকটেরিয়া থাকতে পারে। স্বাভাবিক তাপমাত্রায় দীর্ঘদিন না ধুয়ে রাখার ফলে এসব ব্যাকটেরিয়া বেড়ে ওঠার সুবর্ণ সুযোগ পেয়ে যায়।

একটি পরীক্ষায় বোতলের গলা এবং যে অংশে অনেকে মুখে লাগিয়ে খান, সে অংশ থেকে নমুনা নিয়ে পরীক্ষা করা হয়েছে। পরীক্ষায় ব্যাকটেরিয়ার পরিমাণ এতো বেশি পাওয়া গেছে যে, তা থেকে ফুড পয়জনিং এর মতো অসুস্থতার সৃষ্টি হতে পারে। তাই প্লাস্টিক যদি ব্যবহার করতেই হয় তবে সাদা প্লাস্টিকের বোতল সুবিধাজনক। এ ধরণের প্লাস্টিকের বোতল ল্যাবরেটরিতেও ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এ ধরনের বোতল থেকে রাসায়নিক উপাদান শরীরে আসার সম্ভাবনা কম। তবে যে ধরণের বোতলই ব্যবহার করুন না কেন, স্বাস্থ্যঝুঁকি এড়াতে নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে।