মেইন ম্যেনু

একজিমার যন্ত্রণা কমান ঘরে তৈরি করা ক্রিমে

একজিমা যাদের আছে তারাই জানেন কি ভীষণ যন্ত্রণা তাদের ভোগ করতে হয়। ত্বকের অবস্থা খারাপ তপ হয় বটেই, এই যন্ত্রণায় তাদের অনেক সময়েই ঘুম পালায়। রাতের পর রাত ঘুম হয় না। আপনি যদি হয়ে থাকেন তেমনই এক ভুক্তভোগী, তাহলে আপনার জন্যই এই একজিমা ক্রিম। এই সুগন্ধি ক্রিম আপনার ত্বকের জ্বালাপোড়া দূর করে আরাম দেবে, রাত্রের ঘুম হবে নিশ্চিন্ত।

যা যা লাগবে

– সিকি কাপ নারিকেল তেল
– সিকি কাপ শেয়া বাটার
– ৫ ফোঁটা টি ট্রি এসেনশিয়াল অয়েল
– ১৫ ফোঁটা ল্যাভেন্ডার এসেনশিয়াল অয়েল

যা করতে হবে

১) প্রথমে একটা ছোট সসপ্যানে পানি ফুটিয়ে নিন। এর ওপরে বসানো যায় এমন একটা মেটাল বা কাঁচের বোল এর ওপরে রাখুন। এই গরমে গলিয়ে নিন নারিকেল তেল এবং শেয়া বাটার।

২) ভালোভাবে মিশে গেলে নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন। এরপর মিশিয়ে নিন টি ট্রি এসেনশিয়াল অয়েল এবং ল্যাভেন্ডার এসেনশিয়াল অয়েল।

৩) এবার একটা ইলেকট্রিক বিটার দিয়ে বিট করে নিন যতক্ষণ না এটা লোশনের মতো ক্রিমি একটা মিশ্রণে রূপান্তরিত হয়। এবার একটা জারে উঠিয়ে রাখুন এবং ব্যবহার করুন ঘুমাতে যাবার আগে। প্রণালীটি দেখে নিতে পারেন Popsugar এর এই ভিডিওতে।

জেনে তো নিলেন কী কী ব্যবহারে কীভাবে ক্রিমটা তৈরি করতে হবে। অনেকের মনেই প্রশ্ন থাকতে পারেন, ঠিক এই উপাদানগুলোই কেন ব্যবহার করতে হবে। দেখে নিতে পারেন এই উপাদানগুলোর উপকারিতা-

নারিকেল তেল- আপনার এর প্রতি অ্যালার্জি না থাকলে নারিকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন অনেক উপায়ে। আমরা চুলের জন্য নারিকেল তেল হরহামেশাই ব্যবহার করি। কিন্তু ত্বককে আরাম দিতে এবগ্ন সারিয়ে তুলতেও নারিকেল তেল কার্যকরী। অনেকটা ভিটামিন ই থাকার পাশাপাশি এটা বেশ ভালো ময়েশ্চারাইজার হিসেবেও কার্যকরী। তবে এর জন্য অবশ্যই একদম শুদ্ধ নারিকেল তেল দরকার হবে। এতে কোন কেমিকেল, পারফিউম বা কালার থাকবে না।

শেয়া বাটার- একজিমার শুষ্ক ত্বক সারিয়ে তুলতে দারুণ কাজ করে শেয়া বাটার।

টি ট্রি এসেনশিয়াল অয়েল- একজিমা হলে অনেকে চুলকে চুলকে ত্বক ঘা করে ফেলেন। এই ইনফেকশন রোধ করতে সাহায্য করে টি ট্রি অয়েল।

ল্যাভেন্ডার এসেনশিয়াল অয়েল- ল্যাভেন্ডার অয়েলের সুগন্ধি ঘুম আনার জন্য সহায়ক। কিন্তু শুধু তাই নয়, এটা অ্যান্টিসেপ্টিক এবং অ্যান্টিফাঙ্গাল হিসেবেও দারুণ।