মেইন ম্যেনু

একটি গণমাধ্যম জঙ্গিবাদকে সমর্থন দিচ্ছে

জঙ্গি কর্মকাণ্ডের ছবি ছাপিয়ে দেশের একটি গণমাধ্যম জঙ্গিবাদকে উস্কানি ও সমর্থন দিচ্ছে বলে মনে করছে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল।

শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় এ মন্তব্য করেন কাউন্সিলের সচিব শ্যামল চন্দ্র কর্মকার।

‘বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করার নানামুখি ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় জনসচেতনতার বিকল্প নেই’ শীর্ষক এ আলোচনা সভায় আয়োজন করে দৈনিক ‘বজ্রশক্তি’।

শ্যামল চন্দ্র কর্মকার বলেন, ‘জঙ্গিবাদের ছবি প্রকাশ করার জন্য ওই গণমাধ্যমকে আমরা আইনী নোটিশ পাঠিয়েছি। কিন্তু এখন ‌পর্যন্ত আমাদের নোটিশের কোনো জবাব দেয়নি তারা।’ তবে গণমাধ্যমটির নাম বলেননি তিনি।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশেবিরোধী নানা ষড়যন্ত্র চলছে। তবে এ ষড়যন্ত্র বাস্তবায়ন হবে না। কিন্তু এরপরও আমাদের সচেতন থাকতে হবে।’

এসময় বক্তারা বলেন, ‘গণমাধ্যম মানেই এখন ব্যবসা ও রাজনীতি। তাই গণমাধ্যমের ওপর জনগণের অনীহা চলে এসেছে। কিন্তু গণমাধ্যম যদি তাদের অসৎ উদ্দেশ্য পরিহার না করে তাহলে আমাদের সামনে আরো খারাপ সময় চলে আসবে।’

ব্যবসায়ীরা গণমাধ্যমকে নষ্ট ও ম্লান করে ফেলেছে বলেও মন্তব্য করেন বক্তারা।

দৈনিক ‘বজ্রশক্তি’ আয়োজিত এ আলোচনা সভায় ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিল। তবে মন্ত্রণালয়ের কাজে ঢাকার বাইয়ে অবস্থান করায় ভিডিও ফুটেজের মাধ্যমে আলোচনার অথিতিসহ সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

দৈনিক ‘বজ্রশক্তি’র উপদেষ্টা রুফায়দাহ পন্নীর সভাপতিত্বে সভায় বিশিষ্ট অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান, মানবাধিকার কর্মী অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ, লালন গবেষক আবু ইসহাক হোসেন, জেটিভি অনলাইনের চেয়ারম্যান মসীহ উর রহমান প্রমুখ এসময় উপস্থিত ছিলেন।