মেইন ম্যেনু

একটি ‘চারা গাছের’ জন্য হত্যা

ময়মনসিংহের ত্রিশালে চারা গাছের মাথা ভাঙ্গার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ধানীখোলা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক চাঁন মিয়াকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন আরও দুই জন।

বৃহস্পতিবার বিকালে ত্রিশালের ধানীখোলা ইউনিয়নের মধ্যভাটিপাড়া ডামের মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতদেরকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ময়মনসিংহ কমিউনিটি বেজড মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, ডামের মোড় এলাকায় পল্লী বিদ্যুতের লাইনের সংযোগ দিতে লাইনম্যান খুঁটিতে উঠেন। এ সময় একটি চারা গাছের মাথা ভেঙ্গে যায়।

এ জের ধরে স্থানীয় আত্তস আলীর ছেলে ফজল মিয়া চাঁন মিয়ার ভাতিজা মতিউর রহমান পারভেজকে মারধর করে। এরপর উভয়ের মধ্যে সমঝোতা হলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

পরে বিকাল সাড়ে ৪ টার দিকে আত্তস আলীর ছেলে ফজল মিয়া তাদের পক্ষের ২০/২৫জন লোকসহ লাঠি ও বাঁশ নিয়ে ধানীখোলা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক চান মিয়ার বাড়িতে হামলা করে।

এ সময় হামলাকারীরা এনামুল হক চাঁন মিয়াকে বাঁশ দিয়ে বেধরক পেটায়। এক পর্যায়ে তারা মাথায় আঘাত করলে চাঁন মিয়া গুরুতর আহত হন। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে ময়মনসিংহ কমিউনিটি বেজড মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

ত্রিশাল থানার উপ-পরিদর্শক হাফিজ জানান, ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ফজল মিয়া নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে হত্যা মামলা হবে বলে জানান তিনি।

এ ঘটনায় ধানীখোলা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আজিজ ও নিহতের ভাতিজা মতিউর রহমান পারভেজও গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদেরকেও ময়মনসিংহ কমিউনিটি বেজড মেডিকেল কলেজ হাপসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।