মেইন ম্যেনু

একটি মাত্র তেল দূর করে দেবে সাদা চুলের সমস্যা

প্রচলিত আছে “কুড়িতে বুড়ি’। কিন্তু কেউ কি কুড়িতে বুড়ি হতে চায়? বুড়ি হতে কেউ চায় না। এই বয়স ধরে রাখার জন্য মানুষের শত চেষ্টা। ত্বকের যত্নে ব্যবহার করছে নানা ফেসপ্যাক। ফেসপ্যাক ব্যবহারে ত্বকের বলিরেখা না হয় প্রতিরোধ করলেন, কিন্তু চুল এই চেষ্টাতে পানি ফেলে দিতে পারে। অনেকে আছেন বয়স হওয়ার আগে চুল পেকে যায়। ছেলেরা কাঁচা-পাকা চুল নিয়ে বয়সের তুলনায় ভারিক্কি একটা ভাব নিয়ে ঘুরে বেড়ালেও মেয়েদের জন্য এটা বিড়ম্বনা ছাড়া আর কিছুই না! আর এই সাদা চুল ঢাকতে অনেকেই ব্যবহার করেন কলপ অথবা হেয়ার কালার। কলপ অথবা হেয়ার কালার দিয়ে সাময়িকভাবে সাদা চুল থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

মূলত চুলের রং নির্ভর করে মেলানিনের উপর। বয়স বাড়ার সাথে সাথে শরীরের মেলানিন তৈরির ক্ষমতা কমে আসে বলে বৃদ্ধ বয়সে চুল পেকে যায়। বয়স বৃদ্ধি হলে চুল পাকাটা স্বাভাবিক। কিন্তু কম বয়সে চুল পাকার অন্যতম কারণ হল জিন অথবা বংশগতির প্রভাব। এই চুল পাকার সমস্যা সমাধান করে দেবে একটি মাত্র তেল। আসুন জেনে নিন সেই জাদুকরী তেল তৈরির প্রণালী।

যা যা লাগবে:

২০০ মিলিলিটার নারকেল তেল

এক মুঠো কারিপাতা

যেভাবে তৈরি করবেন:

১। কারি পাতা ভাল করে ধুয়ে রোদে শুকিয়ে নিন। বাদামী রং না হওয়া পর্যন্ত রোদে শুকান।

২। এবার কারি পাতাগুলো গুঁড়ো করে নিন।

৩। একটি পাত্রে তেল নিয়ে জ্বাল দিন। বলক আসলে এতে চার টেবিল চামচ কারি পাতার গুঁড়ো দিয়ে দিন।

৪। বলক আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এরপর এটি নামিয়ে ঠান্ডা হওয়ার জন্য অপেক্ষা করুন।

৫। একটি এয়ার টাইট কনটেইনারে এটি সংরক্ষণ করুন।

৬। নিয়মিত ব্যবহারে এক সপ্তাহের মধ্যে আপনি চুলের রং এর পরিবর্তন দেখতে পাবেন।

কীভাবে কাজ করে:

কারি পাতায় রয়েছে ভিটামিন বি, মিনারেল, জিঙ্ক, সেলেনিয়াম, জিঙ্ক রয়েছে যা সাদা চুল কালো করতে সাহায্য করে। এটি চুলের মেলানিন ধরে রাখে।