মেইন ম্যেনু

একদিনেই মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশন

‘আন্তর্জাতিক সিভিল সার্ভিস দিবস’ উপলক্ষে ওয়ান স্পট সার্ভিসের আওতায় হয়রানি বা ঝামেলা ছাড়াই একদিনে মোটরসাইকেলের রেজিস্ট্রেশন করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউয়ের রাজধানী উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে স্থাপিত অস্থায়ী ক্যাম্পে বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটির (বিআরটিএ) উদ্যোগে এ কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত ঢাকা মেট্টোপলিটন এলাকার মোটরসাইকেল স্পটে রেজিস্ট্রেশন করা যাবে।

জানা গেছে, ওয়ান স্পট সার্ভিসের আওতায় একদিনেই মোটরসাইকেলের রেজিস্ট্রেশনের সঙ্গে সঙ্গে পাওয়া যাবে নম্বরও। এ সেবাটি আপাতত চলমান হচ্ছে না, এটা কেবল একদিনের জন্যই দেয়া হচ্ছে ‘আন্তর্জাতিক সিভিল সার্ভিস দিবস’ উপলক্ষে।

এ দিন মানিক মিয়া এভিনিউয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সঙ্গে নিয়ে গিয়ে নির্দিষ্ট ফি জমা দিলেই হয়ে যাবে রেজিস্ট্রেশন নম্বর পাওয়া যাবে।

রেজিস্ট্রেশনের জন্য যেসব কাগজ সঙ্গে আনতে হবে-

১. মালিক ও আমদানিকারক/ডিলার কর্তৃক যথাযথভাবে পূরণ ও স্বাক্ষর করা নির্ধারিত আবেদনপত্র।

২. মালিকের তিন কপি সদ্য তোলা স্ট্যাম্প সাইজের রঙিন ছবি।

৩. বিল অব এন্ট্রি, ইনভয়েস, বিল অব লেডিং ও এলসিএ কপি (ফটোকপি আমদানিকারক অথবা শোরুম মালিক কর্তৃক সত্যায়িত)।

৪. সেল সার্টিফিকেট/সেল ইন্টিমেশন/বিক্রয় প্রমাণপত্র।

৫. প্যাকিং লিস্ট, ডেলিভারি চালান ও গেট পাস।

৬. (ক) মূসক- ১, (খ) মূসক- ১১(ক) এবং (গ) ভ্যাট পরিশোধের চালান।

৭. সিকেডি মোটরযানের ক্ষেত্রে বিআরটিএর টাইপ অনুমোদন ও অনুমোদিত সংযোজনী তালিকা।

৮. রেজিস্ট্রেশন ফি জমাদানের রসিদ।

৯. ব্যক্তি মালিকানাধীন আবেদনকারীর ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয়পত্র/পাসপোর্ট/ টেলিফোন বিল/ বিদ্যুৎ বিল ইত্যাদির যে কোনো একটির সত্যায়িত ফটোকপি এবং মালিক প্রতিষ্ঠান হলে প্রতিষ্ঠানের প্যাডে চিঠি। তা ছাড়া ১২৫ ও তদূর্ধ্ব সিসি ক্ষমতাসম্পন্ন মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে ৫০ টাকার নন-

জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে অঙ্গীকারনামা (অঙ্গীকারনামার নমুনা বিআরটিএর ওয়েবসাইটে ও স্পটে পাওয়া যাবে)।