মেইন ম্যেনু

একদিনের সেই ছোট্ট ‘পুলিশ অফিসার’ চলে গেল সবাইকে কাঁদিয়ে

ছেলেটির স্বপ্ন ছিল বড় হয়ে একজন পুলিশ অফিসার হবেন। তবে বড় হয়ে নয়, তার এ স্বপ্ন পুরণ হয়েছিল ছোট্টবেলাতেই, আর সেটা একদিনের জন্য। তবে ছেলেটির সেই ইচ্ছেপূরণের ঠিক এক বছরের মাথায় বরাবরের জন্য পৃথিবী ছেড়ে ভিন্ন এক দুনিয়ায় পাড়ি দিয়েছে সেই ১১ বছরের গিরিশ শর্মা।

গত বছর ৩০ এপ্রিল ১দিনের জন্য ভারতের জয়পুরের পুলিশ কমিশনার হয়েছিল গিরিশ। তখন তার বয়স ছিল ১০। কিডনির কঠিন অসুখে শয্যাশায়ী ছেলেটি ভর্তি ছিল স্থানীয় হাসপাতালে। প্রতিদিন একটু একটু করে কমছিল জীবন। কিন্তু আশায় ঘাটতি পড়েনি তার। অসুস্থ গিরিশ বড় হয়ে পুলিশ হওয়ার স্বপ্ন দেখত।

সেখানেই এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার যোগাযোগসূত্রে ১দিনের জন্য কমিশনারের চেয়ারে বসে সে। তার রুগ্ন মুখের খুশির হাসি জল এনে দিয়েছিল অনেক দুঁদে অফিসারের চোখে। কিন্তু শারীরিক অবস্থার দিন দিন অবনতি হচ্ছিল তার। মায়ের কাছ থেকে একটা কিডনি নিয়ে বাঁচানোর শেষ চেষ্টা করেছিলেন চিকিৎসকরা। তাতেও কাজ হয়নি।

ছেলেকে দিল্লির এইমসে নিয়ে গিয়েছিলেন বাবা, খাবার বিক্রেতা জগদীশ শর্মা। সোমবার রাতে চিকিৎসকরা পুরোপুরি হাল ছেড়ে দেওয়ায় গিরিশকে নিয়ে জয়পুর ফেরার মরিয়া চেষ্টা করেন তিনি যাতে বাড়িতে মায়ের কোলে শেষ নিঃশ্বাস ফেলতে পারে সে। কিন্তু সেই আশা পূরণ হয়নি। বাড়ি থেকে অনেক দূরে দিল্লির হাসপাতালে সে রাতেই মারা যায় ছোট্ট গিরিশ। ১দিনের জন্য ইচ্ছেপূরণের আনন্দ সঙ্গে নিয়ে।