মেইন ম্যেনু

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির নিয়মাবলী প্রকাশ

২০১৬-২০১৬ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদনের নিয়মাবলী প্রকাশ করা হয়েছে। বুধবার (২৫ মে) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েব সাইটে ভর্তি সংক্রান্ত এ নির্দেশিকা প্রকাশ করা হয়।

অনলাইনে এবং টেলিটক প্রি-প্রেইড সংযোগ থেকে খুদে বার্তার (এসএমএস) মাধ্যমে আবেদন করা যাবে। অনলাইনে আবেদন করতে www.xiclassaddmison.gov.bd এ ঠিকানায় প্রবেশ করতে হবে। তবে এ ঠিকানায় এখনও ভর্তি নির্দেশিকা আপলোড করা হয়নি। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড, ঢাকায় এ সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাচ্ছে।

এবার অনলাইনে একবারই আবেদনের সুযোগ থাকছে। ১৫০ টাকায় একসঙ্গে ১০টি কলেজে পছন্দ অনুযায়ী আবেদন করা যাবে।

টেলিটকে ১২০ টাকা হারে ১০ বারে সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে আবেদন করা যাবে। এসব ক্ষেত্রে কলেজ কর্তৃক নির্ধারিত আবেদনের যোগ্যতা বিবেচিত হবে।

আগামীকাল ২৬ মে থেকে আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হবে। শেষ হবে ৯ জুন। ১৬ জুন মনোনীতদের তালিকা প্রকাশ করা হবে। ১৮ জুন থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত ভর্তি প্রক্রিয়া চলবে। ১০ জুলাই থেকে ২০ জুলাই বিলম্ব ফি দিয়ে ভর্তি হওয়া যাবে।

ভর্তি হওয়ার পর ক্লাস শুরু হবে ১০ জুলাই থেকে। ১ জুলাই থেকে একাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরুর নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়। কিন্তু ঈদুল ফিতরের কারণে ১০ জুলাই থেকে ক্লাস শুরু হবে।

এদিকে পুনঃনিরীক্ষণের ফল জুনের ৬/৭ তারিখে প্রকাশ হবে। এ বিষয়ে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, একাদশে ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার দুই/তিন আগে পুনঃনিরীক্ষণের ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

প্রথম ফল প্রকাশের এক মাসের মধ্যে পুনঃনিরীক্ষণের ফলাফল দেয়ার নিয়ম। ১১ মে এসএসসির ফল প্রকাশ করা হয়েছে। নিয়মানুযায়ী ১১ জুন পর্যন্ত সময়। যেহেতু ৯ জুন পর্যন্ত একাদশে আবেদনের সময়সীমা, সেহেতু দুই/তিন আগে ফল দেয়া হবে। যাতে পুনঃনিরীক্ষণের ফলাফলে যারা পাস করবে তারা যেন একাদশে ভর্তির আবেদন করতে পারে।

উল্লেখ্য, এবার এসএসসি পরীক্ষায় পাস করেছে ১৪ লাখ ৫২ হাজার ৬০৫ জন শিক্ষার্থী, যার সিংহভাগ এ প্রক্রিয়ায় অংশ নেবে। সঙ্গে আছে ২০১৩, ২০১৪, ২০১৫ সালে পাস করা শিক্ষার্থী। (২০১৪ থেকে এসএসসি উত্তীর্ণরা এবং ২০১৩ থেকে যারা উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করেছে তারা একাদশ ভর্তি প্রক্রিয়ায় অংশ নেবে)।