মেইন ম্যেনু

এক ট্রাক খুচরো পয়সায় কিনলেন দামি গাড়ি

খুচরো পয়সা জমিয়ে কেউ গাড়ি কিনছেন, কস্মিনকালেও এমন শুনেছেন কখনও? হ্যা, এমন এক ব্যক্তির সঙ্গেই এখন আপনাদের আলাপ করাবো। যিনি রোজ কয়েন জমিয়ে, বিন্দুতে সিন্ধু করে, আস্ত একখান চার চাকার গাড়িই কিনে ফেলেছেন। তিনি চিন-নিবাসী মিস্টার গন।

মিস্টার গন ১ লক্ষ ৪০ হাজার ডলার খরচ করে নতুন যে গাড়িটি কিনেছেন, তার দাম মিটিয়েছেন বলা যায় খুচরো পয়সাতেই। কয়েনে মিটিয়েছেন ৬ লক্ষ ৬০ হাজার ইয়েন, ডলারের হিসেবে ১ লক্ষ ৩৬ হাজার। বাকি, চার হাজার ডলার দিয়েছেন ব্যাংকনোটে।

1পড়ে প্রশ্ন জাগতেই পারে, এত কয়েন গোনা কি সম্ভব! ওই ব্যক্তি যখন অস্ট্রেলিয়ার ওই গাড়ি কোম্পানির শোরুমে গেলেন, সেখানকার লোকজন কয়েন গুনতে বসে এতটুকু বিরক্ত হলেন না? তারা কি ব্যাপারটা ভালো ভাবে নিয়েছেন? না, এতটুকু বিরক্ত হননি। তামার কয়েন পেয়ে, তারা বরং খুশিই।

2

 

 

 

 

 

 

 

 

চিনের একটি দৈনিক সূত্রে খবর, সেখানকার একটি পেট্রোল পাম্পে কাজ করেন ওই ব্যক্তি। সেখান তেল তুলতে বাস এলে, তাদের কাছ থেকে কয়েন জমা করেছেন ওই ব্যক্তি। তিলে তিলে জমানো সেই কয়েনই বিন্দুতে সিন্ধু হয়ে উঠেছে। ট্রাকে করে সেই কয়েন নিয়ে গিয়েছেন গাড়ির শোরুমে। দশ জন মুটে লেগেছে, সেই কয়েন ভর্তি ব্যাগ ট্রাকে তুলতে-নামাতে। আর ওজন? সব মিলিয়ে চার টন।

3

তবে, মিস্টার গণ-ই প্রথম ব্যক্তি নন, যিনি কয়েন জমিয়ে চার চাকার গাড়ি কিনেছেন। চিনের ওই দৈনিকের দাবি, এর আগে গাড়ি না-কিনলেও কয়েন জমিয়ে ফ্ল্যাট কিনেছেন সেন্ট্রাল চিনের সাংসির আর এক ব্যক্তি, নাম ফুজিয়ান। গত মার্চেই তিনি তাঁর ফ্ল্যাটটি কিনেছেন।

4

এমন একটি খবর চাউর হয়েছিল, কয়েক বছর আগে অ্যাপেলের কাছে আইনি-যুদ্ধে হেরে স্যামসাং এক লক্ষ বিলিয়ন অর্থদণ্ড দিয়েছে কয়েনে, যা ট্রাকে করেই পাঠানো হয়েছিল।



« (পূর্বের সংবাদ)