মেইন ম্যেনু

এখনো চলছে ব্রিটিশ-পাকিস্তান আমলের আইন

বাংলাদেশে ব্রিটিশ ভারত ও পাকিস্তান আমলে প্রণীত প্রায় ৩৬৪টি আইন এখন পর্যন্ত বহাল রয়েছে বলে সংসদকে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

মঙ্গলবার সকালে জাতীয় সংসদের ২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট অধিবেশনে টেবিলে উত্থাপিত সরকারদলীয় সংসদ নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনের প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান আইনমন্ত্রী।

আইনমন্ত্রী জানান, ১৯৭১ সালের মার্চ মাসের ২৬ তারিখে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কর্তৃক স্বাধীনতা ঘোষণার পূর্বে তদানীন্তন পূর্ব পাকিস্তানে প্রযোজ্য সকল আইনকে ১৯৭১ সালের ১০ এপ্রিল তারিখে জারিকৃত ল’স কন্টিনুয়ান্স এনফোর্সমেন্ট অর্ডার দ্বারা একই তারিখে জারিকৃত প্রোক্লেমেশন অব ইন্ডিপেন্ডেন্স এর বিধান সাপেক্ষে অব্যাহত রাখা হয়। পরবর্তী সময়ে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের ১৪৯ অনুচ্ছেদ দ্বারা অব্যাহত থাকা উক্ত আইনগুলোকে হেফাজত করা হয়। বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণার অব্যবহিত পূর্বে তদানীন্তন পূর্ব পাকিস্তানে প্রচলিত ব্রিটিশ ভারত ও পাকিস্তান আমলে প্রণীত প্রায় ৩৬৪ আইন এখন পর্যন্ত বহাল রয়েছে।

তিনি বলেন, ‘১৯৭৩ সালে প্রণীত বাংলাদেশ লস (রিভিশন অ্যান্ড ডিক্লারেশন) অ্যাক্ট, ১৯৭৩ (অ্যাক্ট নং ৭, ১৯৭৩) প্রণয়নের মাধ্যমে স্বাধীনতাপূর্ব আইনগুলোকে প্রয়োজনীয় সংশোধন ও অভিযোজন করে বহাল রাখা হয়েছে। বিদ্যমান আইনসমূহ আইন মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রশাসনিক এখতিয়ারাধীন। কোনো মন্ত্রণালয় হতে এর কোনো আইনকে যুগোপযোগী ও বাস্তবমুখীকরণের জন্য সুর্নিদিষ্ট আকারে প্রস্তাব প্রেরণ করা হলে, এ মন্ত্রণালয় থেকে সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। তবে এ মন্ত্রণালয়ের লেজিসলেটিভ ও সংসদবিষয়ক বিভাগের প্রশাসনিক এখতিয়ারাধীন একটি স্বাধীন আইন কমিশন আইনের প্রয়োজনীয় সংশোধনী বা নতুন আইন প্রণয়নের জন্য সুপারিশ করতে পারে।’

আইনমন্ত্রী আরো বলেন, আইন কমিশন আইন সম্পর্কে গবেষণাপূর্বক সুপারিশ প্রদান করে থাকে। উক্ত সুপারিশ বিবেচনায় নিয়ে বিভিন্ন আইন আধুনিকায়ন, বাস্তবমুখী করার জন্য সংশোধন ও প্রণয়ন করা হয়ে থাকে।