মেইন ম্যেনু

এটা কি সাহায্য চাওয়া, নাকি ব্যবসা?

সালাউদ্দীন আহম্মেদ, পোরশা, (নওগাঁ) প্রতিনিধি: এটা কি সাহায্য চাওয়া, নাকি নতুন কোন ব্যবসা? এমন প্রশ্ন শুধু এক জনের নই। আপনার আমার, আমাদের সকলের। ভিক্ষা-বৃত্তি আমাদের সমাজের সব চেয়ে নিচু ও অসম্মান জনক কাজ। তার পরেও যারা একে বারেই দুস্থ অসহায়। খেটে খাওয়ার মতো নেই যাদের কোনই সম্বল, শারিরিক অসুস্থতা কিংবা অনেক প্রতিবন্ধী মানুষেরাই পেটের তাগিদে বেছে নেয় এই নি¤œমানের কাজটিকে।

লাজ সরমের তোয়াক্কা না করে এক মুঠো ভাতের জন্য ঘুরে অন্যের দ্বারে দ্বারে। সারাদিন মানুষের বাড়ি বাড়ি ঘুরে যে টাকা-পয়সা, ধান-চাল জড় হয় তা নিয়ে সন্ধ্যার পর বাড়ি ফিরে। এতে করে তার পরিবারের নাবালক বাল-বাচ্চা খেয়ে দেয়ে কোন রকমে দিন পার করে। কিন্তু বর্তমান সমাজে এই ধরনের নিচু মানের অসম্মান জনক কাজটিকে অনেকেই পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছে। আবার কেউ নিয়েছে ব্যবসা হিসেবে। শরীরের প্রতিটি অঙ্গ-প্রতঙ্গ স্বাভাবিক/ভালো থাকার পরও একটি ব্যাগ কিংবা ঝোলা নিয়ে বেরিয়ে পড়ছে রাস্তায়।

কিছুদিন চাওয়ার পর এদের ভিক্ষা চাইতে খারাপ লাগে। কারণ,- এর মাধ্যমে পাওয়া যায় ১টাকা থেকে ২টা। কাজই তারা নতুন পথ অবলম্বন করে। এবার ভিক্ষা নয়, সাহায্য চাই। আমার মেয়ের বিয়ে, আমার স্ত্রীর ক্যানসার, আমার ছেলের কিডনি নষ্ট ইত্যাদি বাহানা দেখিয়ে সাহায্যের অংকটা বাড়িয়ে নেই। গ্রামের মানুষ খুব সহজ-সরল। তাই এমন অসহায় মানুষকে দেখলেই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়। কিন্তু কেউ ভেবে দেখেন না, লোকটি কে যে টাকাটি দিলাম, আসলে কি তার ছেলে বা মেয়ের এমন কোন সমস্যা আছে কি না?

কাউকে সাহায্য দেওয়া বিরোধী আমি নই। বরং সবাইকে উৎসাহিত করি। সে যদি নিতান্তই ভুক্ত ভোগি হয়, আসুন তাকে আমরা সবাই বেশি বেশি সাহায্য করি। এতে করে মহান আল্লাহ পাক যেমন খুশি হবেন। ঠিক তেমনই আপনার আমল নামাই লিখা হবে তার সওয়াব। কিন্তু এমন যদি সুস্থ-সবল দেহের অধিকারী ছেলে বা মেয়ে। যারা হাতে বিষধর সাপ নিয়ে হাট বাজারে গিয়ে এবং গ্রামের অলিতে-গলিতে ঘুরে সাধারণ মানুষকে ভয় দেখিয়ে টাকা আদায় করে তাদের আপনি কি বলবেন? যদিও তারা মুখে বলছেন, আমার মেয়ের বিয়ে, কখনো বলছেন বোনের বিয়ে। আমাদের সাহায্য করুন। এদের কি সাহায্য দেওয়া ঠিক হবে?

আজ থেকে প্রায় ৩০দিন আগে দু‘জন ছেলে হাতে সাপ নিয়ে এসে বলেছিল ভাই আমার বোনের বিয়ে। আমাকে কিছু সাহায্য করুন। সবাই তাদের সাহায্য করেছিল। একমাস পর আবার এক মেয়ে মানুষ সাপ নিয়ে হাজির। বলে আমার বোনের বিয়ে আমাকে সাহায্য করুন। মেয়েটিকে বলা হলো কিছুদিন আগে দু‘জন ছেলে আপনার মতই সাপ নিয়ে বোনের বিয়ের জন্য টাকা চাইতে এসেছিল। ওরা কি আপনার কেউ হয় নাকি? মেয়েটি বলল,- “না ওরা আমার কেউ হয়না। আর আমি জানিওনা যে কে কার বোনের জন্য এসেছিল। আমি এসেছি আমার বোনের বিয়ের জন্য।”

এমন ঘটনার স্বাক্ষী শুধু আমি নই। বরং আপনি নিজেও। ভেবে দেখুন, সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নিন। তার মানে তাকে ধরতে বা মারতে বলছিনা। উপদেশ দিন, যারা এই ধরণের পেশার সাথে জড়িত আছে। তারা যেন এমন নি মানের কাজ ছেড়ে গায়ে খেটে কামাই করেন। সমাজে মাথা উঁচু করে বাঁচার চেষ্টা করেন।