মেইন ম্যেনু

এবারের আন্তর্জাতিক কোরআন তেলাওয়াতে চ্যাম্পিয়ন হলেন যারা

মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতে প্রথম হয়েছে মালয়েশিয়া ও মিসর। ২ মে শুরু হওয়া এ প্রতিযোগিতায় ক্বারি ও হাফেজ দুই বিভাগে পাঁচ দিনব্যাপী তেলাওয়াত শেষ হয়। ষষ্ঠ দিন শনিবার ফলাফল ও পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে।

হাফেজ বিভাগে ছেলেদের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেন মিসরের হাফেজ আবদুল্লা সাইদ মোহম্মদ। মেয়েদের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেন মিসরের হাফিজা মায়াদা মাহমুদ।

দ্বিতীয় হয়েছেন মালয়েশিয়ার হাফিজা ফারিহা বিনতি যুলকিফলি, তৃতীয় হয়েছেন লেবাননের হাফিজা আসমা আদরা।

হাফেজ বিভাগে পুরুষদের মধ্যে দ্বিতীয় হয়েছেন মালয়েশিয়ার হাফেজ মোহাম্মদ ওমর বিন মনসু, তৃতীয় হয়েছেন ইলহাবাসি।

ক্বারিদের (পুরুষ) তেলাওয়াতের মধ্যে প্রথম হওয়ার গৌরব অর্জন করেন মালয়েশিয়ান ক্বারি ওআন আইনুদ্দীন হিলমি বিন আব্দুল্লাহ। দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছেন ব্রুনাই’র ক্বারি আদিবুল আমিন, তৃতীয় ইন্দোনেশিয়ান ক্বরি হাজি আলাউদ্দিন, চতুর্থ ইরানের ক্বারি সৈয়দ মোস্তাফা হোসাইনী, পঞ্চম হয়েছেন ফিলিপাইনের মোহাম্মদ নাদির আসগর।

ক্বারিদের (মহিলা) বিভাগে প্রথম হয়েছেন মালয়েশিয়ার কারিয়া নূর আজরা বিনতি আয়ুব। দ্বিতীয় হয়েছেন ইন্দোনেশিয়ান ক্বারিয়া মাস্তিয়া লেস্তালুহু, তৃতীয় হয়েছেন ব্রুনাইয়ের ক্বারিয়া সিতি হাজ্জাইমা, চতুর্থ হয়েছেন মরক্কোর কারিয়া সালমা ও পঞ্চম ফিলিপাইনের কারিয়া সাবাহা সালিক।

বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরবিষয়ক মন্ত্রী দাতু জামিল খাইর বাহারুম।

মালয়েশিয়া আয়োজিত ৫৮তম আন্তর্জাতিক কোরআন তেলাওয়াত মজলিসের বিচারক ছিলেন মালয়েশিয়া, ব্রুনাই, জর্ডান, সৌদি আরব, লেবানন, মিসর ও থাইল্যান্ডের বড় ক্বারি ও হাফেজগণ।

প্রতিযোগিতায় পৃথিবীর ৫৭টি দেশের হাফেজ ও ক্বারি তেলাওয়াতে অংশ নেন।

শনিবার মাগরিব নামাজের পর পর কুয়ালালামপুরে পুত্রা ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের দেওয়ান মারদেকা (স্বাধীনতা মিলনায়তন) দেশি ও বিদেশি দর্শক-শ্রোতার আগমনে পরিপূর্ণ হয়ে যায়।

গ্যালারিতে অধিকাংশই ছিলেন নারী দর্শক। মালয়েশিয়ায় নিয়োজিত বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকরাও এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।